ফের নক্ষত্রপতন বলিউডে। দীর্ঘদিন ধরে ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন বলি অভিনেতা ইরফান খান। অবশেষে আর শেষরক্ষা হল না। মায়ের মৃত্যুর রেশ কাটতে না কাটতেই বলিউডকে বিদায় জানিয়ে চলে গেলেন বলি অভিনেতা ইরফান খান। গতকালই হঠাৎই গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অভিনেতা। তড়িঘড়ি করে তাকে মুম্বইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু পরিস্থিতির অবনতি হতেই আর ঠেকানো গেল না অভিনেতাকে। মৃত্যুকালে অভিনেতার বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। অবশেষে থামল দীর্ঘ দেড় বছরের লড়াই। কোলন সংক্রমণের কারণেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন অভিনেতা।

আরও পড়ুন-মায়ের শেষ ইচ্ছে পূরণ হল না, তার আগেই চলেগেলেন ইরফান...

অভিনেতার মৃত্যুর খবরে শুধু বলিউডেও নয়, শোকের ছায়া নেমে এসেছে গোটা টলিউডে। তার এই অকাল মৃত্যুকে কেউই যেন মেনে নিতে পারছে না। ইরফানের মৃত্যুকে বিশাল ফাঁক তৈরি হল বলি ইন্ডাস্ট্রিতে। ডার্ক শেডের চরিত্র থেকে কীভাবে বলিউডের সেরা অভিনেতা হয়ে উঠেছিলেন ইরফান, তা তিনি অভিনয় দিয়েই সমস্ত দর্শকদের বুঝিয়ে দিয়েছেন। অসুস্থ অবস্থাতেও 'আংরেজি মিডিয়াম'-এ নিজের সর্বস্ব উজার করে দিয়েছিলেন অভিনেতা। আর এই সিনেমাই বলিউডে শেষ সিনেমা হয়ে থেকে গেল সিনেমাপ্রেমীদের হৃদয়ে।

আরও পড়ুন-বলেছিলেন সুতপার জন্যই বাঁচতে চাই, বাঙালি বউকে একা ফেলে চলে গেলেন কথা খেলাপি ইরফান...

বলি অভিনতা ইরফানের মৃত্যুতে শেষ শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন টলি অভিনেত্রী তথা সাংসাদ নুসরত জাহান। নিজের টুইটারে শোকজ্ঞাপন করে অভিনেত্রী নুসরত লিখেছেন, 'লেজেন্ডারি অভিনেতার আকস্মিক প্রয়াণে মর্মাহত। আমি তার পরিবারের সকল সদস্যদের সমবেদনা জানাই'।

সাংসদ অভিনেত্রী মিমিও  নিজের টুইটারে অভিনেতাকে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। তার আত্মার শান্তি কামনা করে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

পরিচালক অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ও বলি অভিনেতাকে টুইটারে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন, দেখে নিন টুইট পোস্টটি।

অভিনেতার মৃত্যুতে টুইটে শোকপ্রকাশ করছেন টলি অভিনেক্ষী তনুশ্রী চক্রবর্তী। তিনি জানিয়েছেন,'অভিনেতা ইরফান খানের মৃত্যুর খবরটা এখনও  যেন কোনওভাবেই বিশ্বাস হচ্ছে না। তার স্ত্রী সন্তান এবং পরিবার প্রিয়জনের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই। বিশ্বের সিনেমা জগতের অনেক বড় ক্ষতি হল। প্রিয় অভিনেতার আত্মার চির শান্তি প্রার্থনা করি'।


বাঙালি অভিনেত্রী পার্ণো মিত্রও গভীর ভাবে শোকাহত ইরফানের মৃত্যুতে। 'ডুব' সিনোমাতেই ইরফানের বিপরীতে কাজ করার সুযোগ হয়েছিল পার্ণোর। সেই সুখস্মৃতি সারাজীবন পার্ণোর হৃদয়ে থেকে যাবে। দেখে নিন টুইট পোস্টটি।