ভারতের নতুন প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগ নীতি বৈষম্যমূলক। সোমবার এমনই অভিযোগ জানিয়ে একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে চিনের দূতাবাস। এখানেই থেমে থাকেনি চিন। একই সঙ্গে জানান হয়েছে প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগ নীতিতে ভারত যে পরিবর্তন এনেছে তা বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার নিয়মের পরিপন্থী। চিনের বক্তব্য নতুন  নীতি নিরপেক্ষ বাণিজ্যে পরিপন্থী। যা বাধা দেবে বাণিজ্যে উদারিকরণে। রীতিমত ব্যাহত হবে বিনিয়োগ। অবিলম্বে ভারত প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগ নীতিতে পরিবর্তন আনতে পুনর্বিবেচনা করবে বলেও আশা প্রকাশ করা হয়েছে।   সুষ্ঠ ও ন্যায়সঙ্গত ব্যবসার পরিবেশ গড়ে তুলতে ভারত উদ্যোগ নেবে বলে জানান হয়েছে চিনের পক্ষ থেকে। 

শনিবারই প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগ নীতিতে পরিবর্তন করেছিল ভারত। জানান হয়েছিল ভারতের সীমান্তবর্তী রাষ্ট্রগুলি কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমতি ছাড়া ভারতে বিনিয়োগ করতে পারবে না। সীমান্তবর্তী রাষ্ট্র বা রাষ্ট্রের বাসিন্দাকে ভারতে বিনিয়োগ করতে গেলে কেন্দ্রীয় সরকারের থেকে প্রয়োজনীয় অনুমোদন নিতে হবে। আগে এই নীতি শুধু পাকিস্তান আর বাংলাদেশের জন্যই কার্যকর ছিল। প্রত্যক্ষ বিনিয়োগের নতুন নীতি সব প্রতিবেশী রাষ্ট্র গুলির জন্যই লাগু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। 

এই ঘটনার সূত্রপাত গৃহঋণদাতা হিসেবে দেশের প্রথম সারির ব্যাঙ্ক এইচডিএফসিতে চিনের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের লগ্নিকে কেন্দ্র করে। পিপিলস ব্যাঙ্ক অব চায়না এইচডিএফসি ব্যাঙ্কের ১.০১ শতাংশ শেয়ারের মালিকানা কিনে নিয়েছে মার্চ মাসেই। আর এই ঘটনায় রীতিমত সমালোচনায় পড়তে হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারকে। বিরোধী নেতা রাহুল গান্ধির অভিযোগ ছিল কেন্দ্রীয় সরকারের উদাসীনতায় এই ঘটনা ঘটেছে। পাশাপাশ বিরোধীদের পরামর্শ, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে গোটা দেশেই লকডাউন চলছে। এই পরিস্থিতি রীতিমত ধাক্কা খাচ্ছে অর্থনীতি। এই অবস্থায় দেশীয় সংস্থাগুলি লাভের আশায় বিদেশী বিনিয়োগের দিকেই এগিয়ে যাবে। যাতে আগামী দিনে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে দেশের অর্থনীতি। তাই কেন্দ্রীয় সরকারের উপযুক্ত পদক্ষেপ নেওয়া জরুরী। এই অবস্থায় গত শনিবার কেন্দ্রীয় সরকার প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগ নীতিতে পরিবর্তন আনে। সূ্ত্রে খবর যার মূল উদ্দেশ্যই ছিল চিনকে আটকানো।

আরও পড়ুনঃ করোনা মোকাবিলায় ভারতের সঙ্গে তুলনা, ট্রাম্প বললেন রেকর্ড করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ...

আরও পড়ুনঃ করোনা মোকিবালায় সাফল্য কুড়িয়ে লকডাউন ইস্যুতে কেন্দ্রের সঙ্গে সংঘাতের পথে কেরল, হোটেল আর যান চলাচলে ...

আরও পড়ুনঃ লকডাউন আমান্য করেই রীতিমত বিপর্যয় ডেকে আনছে, মুম্বই, কলকাতা, জয়পুরকে সতর্ক করল কেন্দ্র ...

শনিবার বিবৃতি জারি করেই ভারত প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগের রদবদল সম্পর্কে অবগত করে। আর সোমবারই সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনই এফডিআইকে ইস্যু করে ভারতের সমালোচনায় সরব হয় চিন।