এজবাস্টনে বাংলাদেশকে ২৮ রানে পরাজিত করে সেমিফাইনালের টিকিট পাকা করেছে ভারত আরও একবার ব্য়াট হাতে রোহিত শর্মা আর বল হাতে জসপ্রীত বুমরা জ্বলে উঠেছেন। কিন্তু সবাইকে ছাপিয়ে গিয়েছেন গ্যালারিতে উপস্থিত ভারতের এই সুপার ফ্যান।

প্রথমার্ধে, রোহিত যখন পিটিয়ে ছাতু করে দিচ্ছেন বাংলাদেশের বোলিং তখনই টিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছিলেন তিনি। গলার শিড় ফুলিয়ে ভেপু বাজিয়ে, হুইল চেয়ারে বসে বসেই নেচে ভারতীয় দলকে উৎসাহ দিচ্ছিলেন তিনি। দুই গালে জাতীয় পতাকার তেরঙ্গা রঙ। উৎসাহ উদ্দীপনায় গ্যালারি সহ সমস্ত মাঠ এদিন জিতে নিলেন তিনি।

আরও পড়ুন - নটে গাছ মুড়োলেও মাথা উঁচু থাকল বাংলাদেশের! দ্বিতীয় দল হিসেবে সেমিতে ভারত

আরও পড়ুন - বুমরা বলছেন স্পেশাল, হার্দিক বলছেন বোন! ছবি দেখেই 'মিনি হার্টঅ্যাটাক' মহিলা ভক্তদের

আরও পড়ুন - বারবার উপেক্ষা, রায়ডু কি এবার বরফের দেশে! এল দারুণ অফার

বিশ্বকাপের ম্যাচের মতো কড়া প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্যেও তিনি আকৃষ্ট করেছেন রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলিদেরও। ম্যাচের পর ভারতের অধিনায়ক-সহঅধিনায়ককে দেখা গেল তাঁর সঙ্গে গিয়ে আলাদা করে কথা বলতে। দুজনকেই গালে হাত বুলিয়ে, চুমু খেয়ে আশীর্বাদ করেন তিনি।

আইসিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বৃদ্ধা জানিয়েছেন তাঁর নাম চারুলতা প্যাটেল। বয়স সামান্য ৮৮ বছর। তাঁর জন্ম কিন্তু ভারতে নয়, তাঞ্জানিয়ায়। তবে তাঁর বাপ-ঠাকুর্দারা ভারতেরই লোক। তাই ভারতকে ছাড়া আর কোনও দেশকে সমর্থন করেন না তিনি। তাঞ্জানিয়া থেকে ইংল্য়ান্ডে এসেছিলেন বহু বছর আগে। তারপর যুক্তরাজ্যেই কাটে তাঁর কর্মজীবন। আর অবসরের পর তাঁর সময় কাটে ক্রিকেট দেখেই। জানিয়েছেন, তাঁর ছেলেরা একসময় সারে কাউন্টির হয়ে ক্রিকেট খেলতেন।