'অ্যাভেঞ্জার্স এন্ড গেম'-এ আয়রনম্যান বা টোনি স্টার্কের মৃত্যুতে যাঁরকা মুষড়ে পড়েছিলেন তাঁরা বিশ্বকাপ ২০১৯-এ মিচেল স্টার্কের বোলিং দেখতে পারতেন। অ্যাভেঞ্জার্স দলে যেমন টোনি স্টার্ক একাই অনেকটা দায়িত্ব নিতেন, মিচেল স্টার্কও সেইরকমভাবেই এই বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া দলের বোলিং বিভাগকে টানার প্রায় পুরো দায়িত্বটাই কাঁধে নিয়ে নিয়েছিলেন।

আর এভাবেই দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে জনি বেয়ারস্টোকে এলবিডব্লু করে তিনি করে ফেললেন একটি বিশাল বিশ্বকাপ রেকর্ড। এদিন ইংল্যান্ডের মাত্র দুইজন ব্যাটসম্যান আউট হয়েছেন। যার মধ্যে জেসন রয়ের আউটা আবার বিতর্কিত। আর যে উইকেটটি ছিল সেটি দখল করার সঙ্গে সঙ্গে চলতি বিশ্বকাপে স্টার্কের ঝুলিতে মোট ২৭টি উইকেট এসে গেল।

আরও পড়ুন - '৯৬-এর পর ফের মিলবে নতুন বিশ্ব-চ্যাম্পিয়ন! নিশ্চিত করলেন রয়-আর্চাররা

আরও পড়ুন - ছিটকে গেল হেলমেট, চিবুক ফেটে রক্তারক্তি! ভয়ঙ্কর বাউন্সার আর্চারের, দেখুন ভিডিও

আরও পড়ুন - ছিটকে যাওয়ার চাপেই কি কাবু বিরাট, বারবার নকআউটে ব্যর্থতার রেকর্ড তাই বলছে

আর এর ফলেই তিনি এক বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি উইকেট সংগ্রহের রেকর্ডও দখল করলেন। ভেঙে দিলেন তাঁর দেশোয়ালি কিংবদন্তি পেসার গ্লেন ম্যাকগ্রার ১২ বছরের পুরনো রেকর্ড। বিশ্বকাপ ২০০৭-এ ওয়েস্টইন্ডিজের মাঠে ম্য়াকগ্রা মোট ২৬টি উইকেট নিয়েছিলেন।

চলতি বিশ্বকাপে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন স্টার্ক। ১০ ম্য়াচে ২৭টি উইকেট দখলের পাশাপাশি ওভার প্রতি রান দিয়েছেন মাত্র ৫.৪৩ করে। প্রতি ২০.৫১ রান পিছু একটি করে উইকেট নিয়েছেন। ৫ উইকেট নিয়েছেন দুইবার - ওয়েস্টইন্ডিজ ও নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। আর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে গ্রুপের ম্য়াচে নিয়েছিলেন ৪ উইকেট। সেমিফাইনালেও স্বল্প রানের পুঁজি নিয়ে লড়ার জন্য ইনিংসের শুরুর দিুকে তিনি কয়েকটি উইকেট ফেলে দেবেন, এমন আশা করেছিল ক্যাঙ্গারুরা। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে তা হয়নি।