মঙ্গলবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে বিশ্বকাপ ২০১৯-এর প্রথম সেমিফাইনালের খেলা চলছে। খেলার শুরুতে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি প্রথম একাদশ জানানোর পরই প্রাক্তন ক্রিকেটার থেকে ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকরা প্রত্যেকেই বিস্মিত হয়ে যান। ১১ জনের তালিকায় যে নাম নেই ৪ ম্যাচে ১৪টি উইকেট নেওয়া মহম্মদ শামির। কেন তাঁকে বাদ দেওয়া হল, তার পিছনে কোনও যুক্তি কেউই খুঁজে পাচ্ছেন না। আর এরপরই নেটিজেনরা নিশানা করেছেন বিরাট কোহলি এবং বিসিসিআই-কে।

শ্রীলঙ্কা ম্যাচে শামিকে বাদ দিয়ে ভুবনেশ্বর কুমারকে খেলানো হয়েছিল। মনে করা হয়েছিল, নক আউটের আগে ভুবিকে খেলিয়ে তৈরি রাখা হচ্ছে। কিন্তু, সেমিফাইনালে শামিকে খেলানো হবে, এটাই সকলে ধরে নিয়েছিলেন। এমনকি কিংবদন্তি ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকর অবধি বলেছিলেন শেষ চারের ম্যাচে দলে শামিকে চাইই চাই। ওল্ড ট্রাফোর্ডেই ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন বাংলার পেসার। কিন্তু, তারপরেও বিরাট কোহলি-রবি শাস্ত্রী জুটি শামিকে খেলালেন না।

আরও পড়ুন - বোলিং-এর সচিন, তারপরেও বারবার বঞ্চিত শামি - ক্ষুব্ধ ভক্তকূল

আরও পড়ুন - রোখা যাচ্ছে না শামিকে - এবার ৫ উইকেট, হল রেকর্ড! হাসিন কী বলবেন

আরও পড়ুন - মাঠে আগুন ছোটাচ্ছেন শামি, হাসিন বলছেন 'বেহায়া', 'নির্লজ্জ'

এদিন শ্রীলঙ্কা ম্য়াচের থেকে দলে একটিই পরিবর্তন করা হয় - কুলদীপ যাদবের বদলে প্রথম একাদশে ফিরিয়ে আনা হয় যুজবেন্দ্র চাহালকে। শ্রীলঙ্কা ম্য়াচের পর পাকিস্তানের এক টিভি প্রোগ্রামে সেই দেশের এক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ দাবি করেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জাতীয় দলে কোনও মুসলিমকে সফল হতে দেখতে চান না। তাঁর নির্দেশেই নাকি শামিকে দেওয়া হয়েছে। কোহলির সমর্থকরা তখন পাল্টা যুক্তি দিয়ে বলেছিলেন এটা শুধুমাত্র রুটিন বিশ্রাম।

সেমিফাইনালে শামিকে দলে না রাখার পর ওই পাক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞের মতো আজগুবি অভিযোগ না করলেও তিনি মুসলিম বলেই বারবার উপেক্ষিত হচ্ছেন কিনা সেই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। বা বলা যায়, ক্রিকেট ভক্তেরা এই প্রশ্ন তুলতে বাধ্য হয়েছেন। কারণ কেউই এই সিদ্ধান্তের পিছনে কোনও ক্রিকেটিয় যুক্তি খুঁজে পাচ্ছেন না। কেউ কেউ জানতে চেয়েছেন, তাঁর কি চোট রয়েছে? কেউ সরাসরি ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অধিনায়ক কোহলি ও ভারতীয় বোর্ডের বিরুদ্ধে।   

কেউ কেউ একেবারে পরিসংখ্যান তুলে দেখিয়েছেন, শামি ৪ ম্যাচে ১৪ উইকেট নিয়েছেন, যেখানে ভুবনেশ্বর ৬ ম্যাচে নিয়েচেন ৭ উইকেট। আরেকজনমনে করিয়ে দিযেছেন শুঘধু বিশ্বকাপে বাল ফর্মে আছেন শামি, তাই নয়, চলতি বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ড সফরেও দারুণ ফর্মে ছিলেন শামি।

এমনকী টেলিভিশনে ধারাভাষ্য দিতে গিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও। অবাক হয়েছেন হর্ষ ভোগলে, আকাশ চোপরার মতো ধারাভাষ্যকাররাও।