১০ বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ও টেস্ট ক্রিকেট ফিরেছে পাকিস্তানে। ২০০৯ সালে যে শ্রীলঙ্কা সন্ত্রাসের মুখে পরেছিল তারাই পাকিস্তানের দিকে দশ বছর পর বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল। পাকিস্তানের বর্তমান দলের ক্রিকেটাররা প্রথমবার দেশের মাঠে টেস্ট ক্রিকেট খেলার স্বাদ পেলেন। ঘরের মাঠে দশ বছর পর টেস্ট ক্রিকেট আয়োজন করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড অনেক স্বস্তিতে। এমনকি এবার ঘরের মাঠে প্রথম দিন রাতের টেস্ট খেলার পরিকল্পনাও শুরু করিল পিসিবি। কিন্তু এবার সেই উদ্যোগে বড় ধাক্কার মুখে পরতে পারে তারা। আগামী বছরের শুরুদিকে বাংলাদেশকে দুই ম্যাচেট টেস্ট সিরিজ খেলার জন্য পাকিস্তানে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু এই সফর নিয়েই এবার তৈরি হয়েছে সমস্যা। কারণ বাংলাদেশ ক্রিকেটে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে অনেকে ক্রিকেটারই পাকিস্তানে যেতে চাইছেন না। 

আরও পড়ুন - আবার সৌরভের প্রশংসা রবি শাস্ত্রীর গলায়, বলছেন মহারাজকে শ্রদ্ধা করেন তিনি

মাস দুয়েক আগে যখন পাকিস্তানে শ্রীলঙ্কার দল একদিনের সিরিজ খেলতে গিয়েছিল তখন দলের ১০ জন সিনিয়র ক্রিকেটেরা নিজেদের সেই সফর থেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন। তাদের বক্তব্য ছিল নিরাপত্তার কারণে পাকিস্তানে যেতে চান না তার। তাই সেবার কার্যত জুনিয়র দলকে পাকিস্তান পাঠিয়েছিল লঙ্কার ক্রিকেট বোর্ড। এবার একই ছবি দেখা যেতে পারে বাংলাদেশ ক্রিকেটের ক্ষেত্রেও। পাকিস্তান যাওয়া নিয়ে এখনও চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি বাংলাদেশ। কিন্তু তার আগেই একটা বিষয় পরিস্কার করে দিয়েছেন বাংলা ক্রিকেটের প্রধান নাজমুল হাসান। তাঁর পরিস্কার কথা, দলের কোনও ক্রিকেটার যদি পাকিস্তানে যেতে না চায় তহলে বাংলাদেশ বোর্ড সেই ক্রিকেটাররে জোর করে পাঠাবে না। 

আরও পড়ুন - আমি ফাঁসি দিতে চাই নির্ভয়ার দোষীদের, অমিত শাহকে রক্ত দিয়ে চিঠি লিখলেন আন্তর্জাতিক শ্যুটার

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধামন এমন কথা বলার পর অনেকেই বলছেন তাহলে কী জুনিয়র দল  পাকিস্তানে পাঠাতে চলেছে বাংলাদেশে? সেটা নিয়েও ধোঁয়াশা বজায় রেখেছেন নাজমুল। বলছেন এখনও নিরাপত্তা সংক্রান্ত ক্লিয়ারেন্স পাননি তারা। সেটা পাওয়ার পর দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন। তারপই সিদ্ধান্ত হবে পাকিস্তান সফর নিয়ে। কিন্তু চলতি বছরেই জাতীয় মহিলা দল ও জুনিয়র দলকে পাকিস্তানে পাঠিয়েছিল বাংলাদেশ। তবে সেবারও দল গিয়েছিল নিরাপত্তা সংক্রান্ত ক্লিয়ারেন্স পাওয়ার পর। এবারও প্রথমে সেই নথি হাতে চাইছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। পাকিস্তান যেখানে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দিন-রাতের টেস্ট খেলার স্বপ্ন দেখছিল সেখানে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড পাকিস্তান যাওয়া নিয়েই চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। আগামী চার-পাঁচ দিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছে বাংলাদেশ বোর্ড। 

আরও পড়ুন - টি-২০ বিশ্বকাপে খেলবেন ধোনি, আত্মবিশ্বাসী গলায় বলছেন ব্রাভো