গোটা বিশ্বে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ  ক্রমশ বেড়েই চলেছে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এশয়ার দেশগুলির মধ্যে নয়া হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে বাংলাদেশের নাম। ইতিমধ্যেই বাংলাদেশে কোভিড ১৯-এ আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৬ হাজার। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৫০। এবার করোনার থাবা বাাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে। করোনায় আক্রান্ত হলেন বাংলাদশের প্রাক্তন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার বর্তমানে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ডেভলপমেন্ট কোচ আশিকুর রহমান। সংবাদ মাধ্যমে তার করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর নিজেই জানিয়েছেন আশিকুর। বলেছেন, 'সোমবারই টেস্টের রিপোর্টটা হাতে পেয়েছি। করোনা পজিটিভ হয়েছে। প্রথমে একেবারেই কিছু টের পাইনি। ভেবেছিলাম টনসিল হয়েছে বলে গলায় ব্যথা। কিন্তু ধীরে ধীরে জ্বর এল। আর তারপর শুরু বুকে ব্যথা। তখনই চিকিৎসকের কাছে যাই। উনি পরীক্ষা করেন। টেস্টের পর রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে।' 

আরও পড়ুনঃফিফার ৫ পরিবর্তের নিয়মকে স্বাগত জানালেন বাইচুং ও বিজয়ন

ক্রিকেটের হিসেবে কেরিয়ার খুব একটা লম্বা হয়নি আশিকুর রহমানের। মাত্র ৬ বছর ক্রিকেট খেলেন তিনি।  প্রথম শ্রেণিতে ১৫টি ম্যাচ এবং এ তালিকাভুক্ত মোট ১৮টি ম্যাট খেলেছেন আশিকুর। উইকেট নিয়েছেন যথাক্রমে ৩৬টি ও ২১টি। এমনকী, ২০০২ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ দলেও জায়গা করে নিয়েছিলেন আশিকুর। ছ’বছরের কেরিয়ারে সিনিয়র দলে খেলার সুযোগ না পেলেও, কোচ হিসেবে বাংলাদেশে ক্রিকেটে অনেকখানি অবদান রয়েছে এই প্রাক্তন পেসারের। বাংলাদেশ মহিলা দলের সহকারী কোচের দায়িত্বে ছিলেন বছর তেত্রিশের রহমান। বর্তমানে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের সঙ্গে যুক্ত তিনি। একইসঙ্গে বামলাদেশের ডেভলপমেন্ট কোচের দায়িত্বও সামলাচ্ছিলেন তিনি।

আরও পড়ুনঃবকেয়া বেতন না পেলে ফেডারেশনে যাওয়ার হুমকি মোহনবাগান ফুটবলারদের

আরও পড়ুনঃআধুনিক নিয়মে আরও ৪ হাজার রান বেশি করতাম,সচিনকে বললেন সৌরভ

আশিকুর রহমানের করোনা আক্রান্তের খবর ছড়াতেই উদ্বেগ বেড়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের। তার সংস্পর্শে কে কে এসেছিলেন তার খোঁজ চলছে। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বাংলাদেশের ডেভলপমেন্ট কোচ। চিকিৎসকরা সর্বক্ষণ পর্যবেক্ষণে রাখছেন তাকে। এখনও পর্যন্ত শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে আশিকুর রহমানের। তাঁর দ্রুত আরোগ্য কামনা করছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটার, বোর্ড কর্তা থেকে ক্রিকেটপ্রেমীরা।