দিন থেকে সরে এসে কাউন্ট-ডাউন এখন ঘন্টায়। ২২ তারিখ থেকে শুরু হতে চলা দিন রাতের টেস্ট নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে উন্মাদনার শেষ নেই। একই রকম উত্সাহের ছবি ধরা পরছে বাংলাদেশ শিবিরেও। এবারই প্রথম পিঙ্ক বলে খেলতে চলেছেন তাঁরাও। টিম ইন্ডিয়ার মত টাইগাররাও ইন্দোর থেকেই শুরু করেছে গোলাপি বলে অনুশীলন। মাঠে নামার জন্য মুখিয়ে আছে তারাও। কিন্তু কোনও চাপ নেই দলের ওপর। বরং এই ঐতিহাসিক সময়টাকে উপভোগ করতে চান তারা। এমনটাই বলছেন বাংলাদেশের স্পিনার মেহদি হাসান। মঙ্গলবার কলকাতায় পৌছে গেছে বাংলাদেশ দল। 

আরও পড়ুন - পিঙ্ক বল টেস্ট নিয়ে উন্মদনা, সুখ-দুঃখ মিলিয়ে মিশ্র ছবি ময়দানে

গোলাপি বলের টেস্টে একটা বড় সমস্যার কথা বলছেন অনেকেই। সেটা শিশির। বছরের এই সময়টায় পূর্ব ভারতে শীতের আমেজ আসতে শুরু করেছে। তাই সূর্য ডোবার পর থেকে হালকা শিশির পরতে শুরু করে। তাই ভারত বাংলাদেশ দিন রাতের টেস্টের তৃতীয় সেশনে শিশির একটা বড় ফ্যাক্টর হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকই। সেই বিষয়টি মাথায় রেখে ইতিমধ্যেই নিজেদ পরিকল্পনা সাজাতে শুরু করে বাংলাদেশ শিবির। ইন্দোরে গোলাপি বলকে জলে ভিজিয়ে অনুশীলন করেছেন বাংলাদেশের পেস বোলাররা। যাতে শিবিরে বল ভিজে গেলেও সেটা গ্রিপ করার অভ্যেসটা আগে থেকেই করে রাখা যায়। ইডেনেও দুদিন একই ভাবে অনুশীলন হবে বলেই জানিয়েছেন বাংলাদেশের স্পিনার মেহদি হাসান। 

আরও পড়ুন - রাধিকা নয় রাতের সঙ্গী গোলাপি বল, ঐতিহাসিক স্বপ্নে ভাসলেন অজিঙ্কা রাহানে

বাংলাদেশ শিবির শিশির নিয়ে চিন্তায় থাকলেও সিএবি কর্তারা আশ্বস্ত করছেন যে দিন রাতের টেস্টে শিশির খুব বড় ফ্যাক্টর হয়ে উঠবে না। পাশাপাশি সিএবির প্রধান পিচ কিউরেটর সুজন মুখোপাধ্যায়ও জানিয়েছেন শিশির মোকাবিলার সব ব্যবস্থা করা থাকছে। যদি অতিরিক্ত শিশির পরে তাহলে সুপার সপার তৈরি আছে। পাশাপাশি অ্যান্টি ডিউ স্প্রেও ব্যবহার করা হচ্ছে ইডেনের আউট ফিল্ডের ওপর। তবে সিএবি যেমন তৈরি থাকছে, তেমনই তৈরি থাকছেন বাংলাদেশের পেস বোলাররাও। ইন্দোরে ভআরতের সামনে দাঁতা ফোটাতে পারেনি তারা। ঐতিহাসিক ইডেনে কিছু একটা করে দেখাতে মরিয়া বাংলাদেশ। 

দেখুন ভিডিও - কোথাও আনন্দ কোথাও হতাশা, পিঙ্ক বল টেস্টের আগে ময়দানে মিশ্র অনুভূতি