পাকিস্তানের মাটিতে বসে অযোধ্যায় রামমন্দিরের প্রশংসা। তাও আবার একজন পাকিস্তানি ক্রিকেটারের। রামমন্দিরের ভূমিপুজোকে ঐতিহাসিক দিন বলে আখ্যা। বিশ্বের সব প্রান্তের হিন্দুদের জন্য এটা গর্বের বিষয়। বক্তা অন্য কেউ নয় দানিশ কানেরিয়া। যাকে কিনা স্রেফ ধর্মের জন্য পাকিস্তানে বারাবার অত্যাচার ও হেনস্থার শিকার হতে হয়েছে বলে অভিযোগ। পাকিস্তান দলের অন্দরেও কানেরিয়াকে শুধু হিন্দু হওয়ার জন্য কোণঠাসা করা হত বলে বারবার অভিযোগ করেছেন কানেরিয়া স্বয়ং। তারপরও মুসলিম রাষ্ট্র পাকিস্তানে বসে সদর্পে রাম মন্দিরের হয়ে আওয়াজ তুললেন তিনি। কানেরিয়ার এই বক্তব্য সামনে আসার পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুনঃপ্রকাশ হল আইপিএলের চূড়ান্ত স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসেডিওর, জেনে নিন নিয়মাবলী

বুধবার অযোধ্যায় রামমন্দিরের শিলান্যাস করেলন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বুধবার মোদী-ভাগবতের উপস্থিতিতে অযোধ্যায় ভূমি পুজো হয়। রূপোর ইঁট গাঁথেন মোদী। তার আগে হনুমাগড়ি মন্দিরে পুজো দেন তিনি। পরে রামলালার দর্শন করেন। রামলালার সামনে ষাষ্টাঙ্গে প্রণাম করতে দেখা যায় মোদীকে। প্রধানমন্ত্রী নিজেও রামমন্দিরের ভূমিপুজো ও শিল্যান্যাককে ঐতিহাসিক বলে আখ্যা দিয়েছে। কার্যত মোদীর সুরে সুর মিলিয়ে কানেরিয়াও রাম মন্দিরের শিল্যান্যাসকে ঐতিহসিক আখ্যা দিয়ে জানান,'আজ বিশ্বের সব হিন্দুর জন্যই ঐতিহাসিক দিন। ভগবান রাম আমাদের আদর্শ। ঈশ্বর রামের সৌন্দর্য তাঁর চরিত্রে, তাঁর নামে নয়। অসত্যের প্রতি সত্যের বিজয়ের প্রতীক রাম। আজ বিশ্বজুড়ে খুশির আবহ। এই মুহূর্তটা আমার জন্য চরম শান্তির।'

 

 

আরও পড়ুনঃআইসিসি ব়্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান ধরে রাখলেন বিরাট কোহলি, দুইয়ে রোহিত শর্মা

আরও পড়ুনঃসন্তানলাভের খুশিতে হাসপাতালেই পার্টি দিলেন হার্দিক-নতাসা

শুধু মাত্র হিন্দু হওয়ার কারণে পাকিস্তান ক্রিকেট দলে তাকে যোগ্য সম্মান দেওয়া হয়নি। এই অভিযোগে বারবার সরব হয়েছেন দানিশ কানেরিয়া। তাকে নানারকম অত্যাচারের শিকার হতে হয়েছে বলেও অভিযোগ। তবে রামমন্দির নিয়ে তার বক্তব্য সত্যিই সাহসিকতার দাবি রাখে। পাকিস্তানে বসে সাহসের সঙ্গে দানিশ কানেরিয়ার এই মন্তব্য মুহূর্তের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। দানিশ কানেরিয়ার সাহসকে কুর্ণিশ জানিয়েছেন নেটাগরিকরা।