ইউরোপে শুরু হয়েছে ফুটবল। শনিবার থেকে শুরু হয়েছে বুন্দেশলিগা। এছড়া অনুশীলনে নেমে পড়েছে ইতালি, স্পেন সহ একাধিক দেশ। জুন মাসেই লিগ শুরু হতে চলেছে আরও বেশ কয়েকটি লিগ। বিশ্ব জুড়ে ফুটব শুরু হচ্ছে আর ক্রিকেট ফিরবে না, তা হয় কী করে। প্রি সিজন চালু করার ঘোষণা আগেই করেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এবার অস্ট্রেলিয়ায় শুরু হতে চলেছে ঘরোয়া ক্রিকেট মরসুম। ৬ জুন থেকে ডারউইন ও জেলা ক্রিকেট প্রতিযোগিতার মরশুম দিয়েই তার সূচনা।  জুনেই হবে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট।

আরও পড়ুনঃতুরস্কের টেলি সিরিয়ালে কী বিরাট কোহলি,মহম্মদ আমিরের পোস্ট করা ছবিতে জল্পনা

বিশ্বের যে কটি ক্রিকেট খেলীয় দেশ করোনার থাবায় আর্থিকভাবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের মধ্যে অস্ট্রেলিয়া অন্যতম। দ্রুত ক্রিকেটে ফেরার দাবি উঠেছিল অনেকদিন থেকেই। এবার ক্লাব ক্রিকেট দিয়েই ২২ গজে ফিরতে চলেছে ৫ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের দেশ। ক্রিকেট শুরু হলেও, বেশ কিছু নয়া নিয়ম লাগু করা হচ্ছে। যেগুলি মেনে চলতে হবে সকল ক্রিকেটারকে। । যেমন, বল চকচকে করার জন্য থুতু কিংবা ঘাম ব্যবহার করা যাবে না। করোনা পরবর্তী সময়ে যে এই নিয়মে বদল আনা হবে, সে ইঙ্গিত আগেই দিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এবার সেই নিয়মই চালু হচ্ছে প্রতিযোগিতা মূলক ক্লাব ক্রিকেটে। তাহলে বিকল্প উপায়? ডারউইন ক্রিকেট ম্যানেজমেন্ট নাকি কয়েকটি বিকল্প পথ ভেবেছে। যার মধ্যে একটি হল মোমজাতীয় জিনিস দিয়ে আম্পায়ারই বল চকচকে করার দায়িত্ব নেবেন।

আরও পড়ুনঃআফ্রিদি তাকে কোনও দিনই দলে নিতে চাইতেন না, অভিযোগ দানিশ কানেরিয়ার

আরও পড়ুনঃসচিনকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে পালটা চাপে যুবরাজ, প্রতিক্রিয়া 'মর গ্যায়ে'

তবে অস্ট্রেলিয়া এখনও পুরোপুরি করোনা মুক্ত নয়। দেশের মাটিতে অক্টোবরে হতে চলা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপ নিয়েও এখনও রয়েছে প্রশ্ন। আদৌ টুর্নামেন্ট হবে কিনা তা নিয়ে সন্দিহান সব মহল। এই পরিস্থিতিতে ক্রিকেট শুরু করা কী ঝুঁকিপূর্ণ হবে না? ডিসিএমের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ক্রিকেটারদের সুরক্ষা নিয়ে সমঝোতা করা হচ্ছে না- এ বিষয় নিশ্চিত করে নর্দান টেরিটরি সরকারের কাছে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট জমা দিতে হবে ক্লাবগুলিকে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও সেসব খতিয়ে দেখবে। ডিসিএম প্রধান ল্যাচনাল বলেন, “কীভাবে ক্রিকেটকে ফেরানো সম্ভব তার যথাসাধ্য চেষ্টা করছে আইসিসি। প্রতিনিয়ত সমস্ত বোর্ডের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। আমরা নিশ্চিত, ক্লাব ক্রিকেটের জন্য নয়া গাইডলাইন আমরা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার থেকে পেয়ে যাব। বলে মোমজাতীয় বস্তু ব্যবহার অনুমতি দেওয়া হয় কি না, সেটাও দেখার।” অনেক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ আবার অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আন্তর্জাতিক না হলেও, ৬ জুন থেকে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ২২ গজে ফের গড়াতে চলেছে বল।