সিরিজের প্রথম টেস্ট ক্যারেবিয়ানদের কাছে হারতে হয়েছিল ইংল্যান্ডকে। দ্বিতীয় টেস্ট ছিল ব্রিটিশ লায়ন্সদের কাছে ডু অর ডাই। দ্বিতীয় ম্যাচে ওল্ড ট্রাফোডে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১১৩ রানে হারিয়ে সিরিজে সমতা পেরাল জো রুটের দল। ম্যাচে ইংল্যান্ডের জয়ের নায়ক বেন স্টোকস ও স্টুয়ার্ট ব্রড। প্রত্যাবর্তনের ম্যাচে ৬ উইকেট নিয়ে স্টুয়ার্ট ব্রড বুঝিয়ে দিলেন তিনি এখনও ফুরিয়ে যাননি। অপরদিকে প্রথম ইনিংসে ১৭৬ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৭৮ রানের ইনিংস ও বলে দুই ইনিংস মিলিয় ৩ উইকটে নিয়ে ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হন বেন স্টোকস।

আরও পড়ুনঃকরোনার কারণে স্থগিত হয়ে গেল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, পরিষ্কার হল আইপিএলের রাস্তা

ওল্ড ট্রাফোডে প্রথম ইনিংসে ডম সিবলে ও বেন স্টোকসের সেঞ্চুরির সৌজন্যে ৪৬৯ রানের পাহাড় খাড়া করে ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসের রান তাড়া করতে নেমে ক্যারেবিয়ানরা থামে ২৮৭ রানে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে অর্ধশতরান করেন ব্রেথওয়েট, ব্রুকস ও চেজ। বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে দ্বিতীয় ইনিংসে ১২৯ রানেই ইনিংস ডিক্লেয়ার করে ইংল্যান্ড। ৭৮ রানে মারকাটারি ইনিংস খেলেন বেন স্টোকস। প্রথম ইনিংসের লিডের সৌজন্য ক্যারেবিয়ানদের ৩১২     রানের টার্গেট দেয় ইংল্যান্ড। কিন্তু ১৯৮ রানেই শেষ হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস। ১১৩ রানে ম্যাচ জিতে সিরিজ ১-১ করল জো রুটের দল।

আরও পড়ুনঃএবার করোনা ভাইরাসের থাবা সাকিব আল হাসানের পরিবারে

আরও পড়ুনঃএশিয়ান গেমসে তাস খেলে জিতেছিলেন সোনা, এবার অর্জুন পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেন দুই বঙ্গ সন্তান

দ্বিতীয় টেস্টের শুরু থেকেই মারকাটারি ছন্দে ছিলেন জো রুটরা। প্রথম ম্যাচের হার ভুলে জয়ের জন্য ঝাঁপিয়েছিল  গোটা দল। জোফ্রা আর্চারের অভাব একেবারেই বুঝতে দেননি স্যাম কুরান। শুধু স্টুয়ার্ট ব্রড বা বেন স্টোকস নয়, দিরন্ত পারফর্ম করেছেন ডম সিবলে, ক্রিস ওকসরা। টেস্টে ১০০টি উইকেটের মালিক হয়েছেন ওকস।  তৃতীয় টেস্ট ২৪ জুলাই ম্যাঞ্চেস্টারেই। সেখানে ফিরতে পারেন জোফ্রা আর্চার। ফলে তৃতীয় ও নির্ণায়ক টেস্ট ম্যাচ ঘিরে উন্মাদনা বাড়ছে ক্রিকেট মহলে।