নিজের বিশ্বকাপ ফাইনালের মেডেলটি হারিয়ে পাগল হয়ে যাওয়ার কথা আগেই জানিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের পেস বোলার জোফরা আর্চার। অবশেষে সেই মেডেলটি খুঁজে পেলেন ইংল্যান্ডের ২০১৯ বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম নায়ক। আর্চার রবিবার জানিয়েছেন, হারিয়ে যাওয়ার পর থেকেই তার নতুন ফ্ল্যাট তন্ন তন্ননকরে খুঁজছিলেন। কিন্তু এতদিন ধরে কোনওভাবেই তিনি মেডেলটি খুঁজে পাচ্ছিলেন না। রবিবার বাড়ির অতিথির শোবার ঘর খোঁজেন আর্চার। পুরো ঘর পাগলের মত দীর্ঘ সময় ধরে খোঁজেন আর্চার। খোঁজার পর অতিথির শোবার ঘর থেকেই পদকটি পান ইংল্যান্ড তারকা পেসার। 

আরও পড়ুনঃক্রিকেটকে বিদায় জানালেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক সানা মীর

আরও পড়ুনঃভিভ রিচার্ডস ও ধোনিই কপিল দেবের নতুন লুকের অনুপ্রেরণা

সম্প্রতি এক সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আর্চার জানান,'মেডেলটি হারিয়ে গেছে।কেউ একজন আমার একটি পোর্ট্রেট করে আমাকে পাঠিয়ে দিয়েছিলেন। দেয়ালে ওটার সঙ্গেই ঝোলানো ছিল মেডেলটি। ফ্ল্যাট বদলে নতুন ফ্ল্যাটে উঠেছি, নতুন দেয়ালে আমার ছবি আছে কিন্তু মেডেলটি নেই। এক সপ্তাহ ধরে বাড়ির ওপর-নিচে খুঁজে দেখছি, কিন্তু এখনও পাইনি। খুঁজতে খুঁজতে পাগল হয়ে গেছি।’  পদকটি হারানোর পর ভেঙেও পড়েছিলেন আর্চার। অবশেষে পদকটি পেয়ে খুব খুশি তিনি। পাওয়ার পর পদকটির একটি ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন জোফরা আর্চার।

 

 

২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড দলের অন্যতম নায়ক ছিলেন জোফরা আর্চার। তার আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খুব একটা জশ ছিল না 
 বার্বাডিয়ান বংশোদ্ভুত ফাস্ট বোলারের।কিন্তু বিশ্বকাপের পর হিরো বনে যান জোফরা আর্চার। আর হবেন নাই বা কেন? বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ২০ উইকেট নিয়েছেন ২৩.০৫ গড়ে বোলিং করে। তারওপর ইংল্যান্ড যে মহানাটকীয় ফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারাতে পারলো, তাতে তো তারও অনেক অবদান। মারাত্মক চাপ নিয়ে সুপার ওভারে অসাধারণ বোলিং করেছিলেন আর্চার।

আরও পড়ুনঃসময়ের আগেই চুক্তি শেষ করতে চলেছে কোয়েস, ইষ্টবেঙ্গলের স্পনসরহীন হওয়া সময়ের অপেক্ষা