১৬ বছরের দীর্ঘ এবং বর্ণময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কেরিয়ারে ইতি টানার কথা ঘোষণা করে দিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ২০১৪ সালে অবসর নিয়েছিলেন টেস্ট ক্রিকেট থেকে। ২০১৯ সালে বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে শেষবার নীল রঙের জার্সিতে মাঠে নেমেছিলেন। তারপর থেকে ক্রিকেট থেকে নিজেকে পুরোপুরি দূরে সরিয়ে রেখেছিলেন। জল্পনা চলছিল অনেক দিন ধরেই যে জাতীয় দলের হয়ে নিজের শেষ ম্যাচ কি খেলে ফেলেছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক? স্বাধীনতা দিবসের দিন সেই জল্পনায় সিলমোহর লাগিয়ে দিয়েছেন পরিসংখ্যানগত ভাবে ভারতের সবথেকে সফল অধিনায়ক। যদিও কয়েকদিন পরেই তাকে ব্যাট এবং গ্লাভস হাতে দেখা যাবে আইপিএলের মঞ্চে। ঝাড়খণ্ডের হয়েই হোক বা জাতীয় দলের হয়েই হোক অথবা হতে পারে আইপিএল, সব জায়গায় নিজের ছাপ ছেড়ে রেখেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। এই প্রতিবেদন থেকে জেনে নিন সব রকমের ক্রিকেটে তার গড়া কয়েকটি রেকর্ড এবং চোঁখ ধাঁধানো পরিসংখ্যান সম্পর্কে। 

আরও পড়ুনঃ'ধোনিই একজনই হয়', প্রাক্তন অধিনায়ককে নিয়ে ভারতীয় ড্রেসিং রুম থেকে কি এল বার্তা

• বিহার, ইস্ট জোন এবং ঝাড়খণ্ডের হয়ে  মোট ১৩১ টি প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ খেলেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। এই ১৩১ টি ম্যাচে তিনি ৩৬.৮৪ গড়ে মোট ৭০৩৮ রান করেছেন। দক্ষিণ-পূর্ব ভারত থেকে খুব কম উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যানের এরকম ভালো রেকর্ড রয়েছে।

• পৃথিবীতে একমাত্র অধিনায়ক হিসাবে ধোনি জিতেছেন সমস্ত আইসিসি ট্রফি। জিতেছেন ২০০৭ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, ২০১১ ওডিআই বিশ্বকাপ এবং ২০১৩ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। পৃথিবীর অন্য কোনও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অধিনায়কের এই কীর্তি নেই। 

• ধোনির নেতৃত্বে ২০০৯ সালে প্রথমবারের জন্য টেস্টে ১ নম্বর রাঙ্কিং দখল করেছিল ভারত। প্রায় ৬০০ দিন ধরে তার অধিনায়কত্বে টেস্টে ১ নম্বর জায়গা ধরে রেখেছিল ভারত। তার নেতৃত্বে দেশের মাটিতে মোট ২১ টি টেস্ট জিতেছে ভারত যা এখনও ভারতীয় অধিনায়কদের মধ্যে সর্বোচ্চ। 

• অধিনায়ক হিসাবে নিজের দেশকে সর্বাধিক ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়ার রেকর্ডও তার দখলে। একমাত্র অধিনায়ক হিসেবে নিজের দেশকে প্রতি ফরম্যাটে ৫০ টি-র বেশি ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়া একমাত্র অধিনায়কও তিনি। ২০০ টি ওয়ান ডে, ৬০ টি টেস্ট এবং ৭২ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ মিলিয়ে মোট ৩৩২ টি ম্যাচে দেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাহি। তার ঠিক পরেই রয়েছেন রিকি পন্টিং। তিনি মোট ৩২৪ টি ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। 

• অধিনায়ক হিসাবে ৬ টি বহুদলীয় ওয়ান ডে প্রতিযোগিতায় দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। এর মধ্যে ৪ টি প্রতিযোগিতায় তার নেতৃত্বে সেরার শিরোপা ছিনিয়ে নিয়েছে ভারত। বহুদলীয় ওয়ান ডে প্রতিযোগিতায় যা অধিনায়ক হিসেবে সর্বোচ্চ। আর কোনও অধিনায়ক নিজের দেশকে ৪ টি বহুদলীয় ওয়ান ডে প্রতিযোগিতায় নেতৃত্ব দিয়ে বিজয়ী হতে পারেননি। 

• নিজের ওয়ান ডে কেরিয়ারে বেশিরভাগ সময়ই ৫ কিংবা ৬, আবার কখনও কখনও ৭ নম্বরে নেমেও দশহাজারের ওপর রান করেছেন তিনি। মোট ৩৫০ টি ওয়ান ডে ম্যাচ খেলে তিনি রান করেছেন ১০,৭৭৩। গড় ৫০ এরও ওপর। আর কতজন ব্যাটসম্যান ব্যাটিং অর্ডারে এত নিচে নেমে এরকম পরিসংখ্যানের মালিক হতে পেরেছেন ? 

• নিজের ওয়ান ডে কেরিয়ারে মোট ৮৪ বার নট-আউট থেকে গিয়েছেন ধোনি যা একটি রেকর্ড। তার মধ্যে ৫১ বারই ভারত রান তাড়া করছিল এবং এর মধ্যে ৪৭ বার ভারত রান তাড়া করে ম্যাচ জিতেছে। অন্য কোনও ব্যাটসম্যান ওয়ান ডে তে নট-আউট থাকার ব্যাপারে ৮০-এর গন্ডি ছুঁতে পারেননি। তার পরে এই তালিকায় রয়েছেন শন পোলক। তিনি কেরিয়ারে মোট ৭২ বার নট আউট থেকেছেন। 

• উইকেটকিপার হিসাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবথেকে বেশি স্টাম্পিংয়ের রেকর্ডও মাহির দখলে। মোট ১৯৫ টি স্টাম্পিংয় এ নাম জড়িয়ে রয়েছে তার। বিশ্বের বড় বড় নামকরা উইকেটকিপারদের মধ্যে কেউ ১০০ স্টাম্পিংয়ের গন্ডিও পেরোতে পারেননি। 

• আইপিএলে সর্বাধিক ম্যাচে অধিনায়কত্বের রেকর্ড-টিও রয়েছে তার দখলে রয়েছে। ট্রফি জয়ের দিক দিয়ে আইপিএলে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন তিনি। মোট ১৯০ টি ম্যাচ খেলে তিনি নিজে রান করেছেন ৪৪৩২। ২৩ বার অর্ধশতরানের গন্ডি টপকেছেন। মোট দুটি দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি আইপিএলে।

আরও পড়ুনঃতাদের বন্ধুত্ব যেন 'জয়-বীরুর' মত, ধোনিকে নিয়ে কথা বলতে গিয়ে আবেগতাড়িত হয়েছিলেন রায়না

আরও পড়ুনঃধোনির সুখ-দুঃখের সঙ্গী তিনি, অবসরের পর আবেগঘন বার্তায় কি জানালেন সাক্ষী