করোনা ভাইরাসের দাপটে কার্যত থমকে গিয়েছে গোটা বিশ্ব। যত দিন এগোচ্ছে ততই বাড়ছে মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। অব্যাহত রয়েছে মৃত্যু মিছিলও। কোভিড ১৯ এর প্রকোপে স্তব্ধ হয়ে গিয়েছে ক্রীড়া বিশ্ব। লকডাউনের কারণে ঘরবন্দি অবস্থাতেই জীবন কাটাচ্ছেন ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা। এই পরিস্থিতি পরিবারের সঙ্গেই সময় কাটাচ্ছেন সকলে। পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও আগের থেকে অনেক বেশি সক্রিয় সকলে। নানারকম কার্যকলাপও করছেন সকলে। কেউ পুরোন খেলার ভিডিও শেয়ার করছেন, কেউ তৈরি করছেন মজার ভিডিও। অনেক ক্রিকেটারই বাছছেন তার কেরিয়ারের সেরা একাদশ। কিন্তু এদের থেকে একটু ভিন্ন পথে হাঁটলেন প্রাক্তন অজি তারকা ব্যাটসম্যান মাইক হাসি। সেরা একাদশের বদলে বাছলেন সেরা শত্রু একাদশ।

আরও পড়ুনঃকরোনার কারণে বাতিল ইষ্টবেঙ্গল বনাম ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের প্রদর্শনী ম্যাচ

আরও পড়ুনঃসেওয়াগের থেকে ইমরান নাজিরের যোগ্যতা বেশি ছিল, ফের বিতর্কিত মন্তব্য শোয়েব আখতারের

টেস্ট ক্রিকেটের নিরিখেই এই দল গড়েছেন মিস্টার ক্রিকেট। হাসির সেরা শত্রু দলে রয়েছেন তিন জয় ভারতীয়রা। ৪৪ বছর বয়সী অজি তারকা তাঁর ওপেনিংয়ে রেখেছেন ভারতের বীরেন্দ্র সেওয়াগকে। সেওয়াগের আক্রমণাত্ব ব্যাটিং দক্ষতার জন্যই বীরুকে দলে রেখেছেন হাসি। হাসির দলে অপর ওপেনার হলেন দক্ষিণ আফ্রিকার গ্রেম স্মিথ। হাসির শত্রু দলে ফাস্ট ডাউন অর্থাৎ মিডল অর্ডারের প্রধান দায়িত্ব দিয়েছে ক্যারেবিয়ান তারকা ব্রায়ান লারা। সচিন তেন্ডুলকরকে রেখেছেন দলের চার নম্বরে। ওই পজিশনে নেমে ভারতীয় দলের হয়ে বেশিরভাগ রান করেছিলেন সচিন। তাই শত্রু একাদশ হলেও সচিনকে তার জায়গাতেই রেখেছেন হাসি। পাঁচে রয়েছেন বিরাট কোহলি। দলে অলরাউন্ডার হিসেবে রেখেছেন প্রোটিয়া তারকা জ্যাক কালিসকে ও উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে রেখেছেন কুমারা সঙ্গাকারাকে। তবে উইকেটকিপার বাছতে গিয়ে সাঙ্গাকারা, ধোনি আর এবি ডিভিলিয়ার্সকে নিয়ে ধন্দে পড়ে গিয়েছিলেন। ধোনি ও ডিভিলিয়াার্স শর্টার ফর্ম্যাটে অনেক বেশি সফল বলে হাসি তার দলে উইকেটের পেছনে সঙ্গাকারাকে রেখেছেন। হাসির বোলিং বিভাগে থাকছেন দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার ডেল স্টেইন, মর্নি মর্কেল, ইংল্যান্ডের পেসার জেমস অ্যান্ডারসন এবং দলে একমাত্র স্পিনার মুথাইয়া মুরলীধরন।

আরও পড়ুনঃঅস্ট্রেলিয়ার স্কটল্যান্ড ও ইংল্যান্ড সফর নিয়ে কোনও আশা দেখছেন না ডেভিড ওয়ার্নার