ক্রমশ ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে বাংলার করোনা পরিস্থিতি। নিত্যদিন রেকর্ড হচ্ছে মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের নিরিখে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। মারণ ভাইরাসের প্রকোপ থেকে রাজ্যের মন্ত্রিসভা বা ক্রিকেট মহল কোনওটাই বাদ পড়েনি। বাংলার ক্রীড়া ক্ষেত্রেও অব্যাহত কোভিড ১৯-এর থাবা। এবার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন বাংলা ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লার স্ত্রী। যেই খবর প্রকাশ্যে আসতেই উদ্বেগ বেড়েছে বাংলার ক্রিকেট মহলে। চিন্তায় প্রশাসনির কর্তা ব্যক্তিরাও।

আরও পড়ুনঃএবার করোনা যুদ্ধে সামিল ইডেন,আগামী সপ্তাহ থেকে ক্রিকেটের নন্দন কানন পরিণত হবে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে

বেশ কয়েক দিন ধরে শারীরিক অসুস্থতা বোধ করেন লক্ষ্মীরতন শুক্লার স্ত্রী স্মিতা সান্যাল শুক্লা। তারপরই করোনা পরীক্ষা করান মন্ত্রীর স্ত্রী। শুক্রাবার তার করোনা রিপোর্ট পজেটিভ ধরা পড়ে। রাজ্যের মন্ত্রী তথা প্রাক্তন ক্রিকেটার লক্ষ্মীরতন শুক্লা জানিয়েছেন,'তাঁর স্ত্রী স্মিতার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। যার ফলে তিনি নিজে, তাঁর দুই ছেলে এবং বাবা হোম কোয়ারেন্টাইনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আগামী বুধবার মন্ত্রীর পরিবারের বাকি সদস্যদেরও করোনা পরীক্ষা হবে। প্রসঙ্গত লক্ষ্মীর স্ত্রী রাজ্যে উচ্চপদস্থ সরকারি আমলা। যার ফলে করোনার প্রকোপের মধ্যেও গত চারমাস অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হয়েছে তাঁকে। করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়েই এই রোগের শিকার হয়েছেন তিনি।'

আরও পড়ুনঃগ্রেগ ছাড়াও তার দল থেকে বাদ পড়ার পেছনে দায়ী ছিলেন অনেকেই,ফাঁস করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

আরও পড়ুনঃখেতাবি লড়াইয়ে নিজেদের টিকিয়ে রাখতে আজ জয়ই লক্ষ্য বার্সেলোনার

বাংলার ক্রিকেট মহলে করোনা আক্রান্তের খবর নতুন নয়। এর আগে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বাংলা ক্রিকেট দলের বর্তমান সিলেক্টর সাগরময় সেন শর্মা। করোনা প্রকোপ থেকে বাদ যায়নি বিসিসিআইয়ের বর্তমান প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়ের পরিবারও। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয় সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়েপ বউদি, অর্থাৎ স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্য়ায়ের স্ত্রী। এছাড়াও আক্রান্ত হয়েছেন সিএবির একাধিক কর্মীও। এবার নতুন করে আক্রান্ত হলেন লক্ষ্মীরতন শুক্লার স্ত্রী। আপাতত তার অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। বাড়িতে থেকেই চলছে তার চিকিৎসা।