করোনা আবহেই বিশ্ব জুড়ে ফিরেছে ফুটবল খেলা। পিছিয়ে থাকতে নারাজ ক্রিকেটও । ইতিমধ্যে ৮ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে ইংল্যান্ড বনাম ওয়েস্ট অন্ডিজ টেস্ট সিরিজ। আমাদের দেশেও পঞ্চম দফার লকডাউন বা আনলক ওয়ানে দেওয়া হয়েছে একাধিক ছাড়। তবে খেলাধুলোর ক্ষেত্রে এখনও কিছু বলা হয়নি।  রাজ্য সরকারও খেলা শুরুর বিষয়ে কোনও নির্দেশিকা জারি করেনি। তবে এরইমধ্যে নিজের অ্যাকাডেমিতে অনুশীলন শুরু করে দিলেন রাজ্যের মন্ত্রী তথা প্রাক্তন ক্রিকেটার লক্ষ্মীরতন শুক্লা। তবে পুরো স্বাস্থ্যবিধি মেনেই অনুশীলন শুরু হয়েছে হাওড়ায় লক্ষ্মীরতন শুক্লার এলআরএস অ্যাকাডেমিতে।

আরও পড়ুনঃএ যেন ছোট্ট ধোনি,অবকিল মারছে মাহির ট্রেডমার্ক হেলিকপ্টার শট,দেখুন ভাইরাল ভিডিও

প্রায় তিন মাস বন্ধ থাকার পর লক্ষ্মীরতন শুক্লা অ্যাকাডেমির হাত ধরে খেলাধুলার মাঠ খুলে গেল কলকাতায়। তবে অনুশীলন শুরু হলেও ব্যাটিং বা বোলিং শুরু করেননি রাজ্যের মন্ত্রী। প্রাথমিকভাবে শুধু শুরু হয়েছে ফিজিক্যাল ট্রেনিং। সেই ট্রেনিংয়ে যোগ দিতে গেলেও সকলকে মানতে হচ্ছে একাধিক নিয়মকানুন। কার্যত স্বাস্থ্যবিধি তৈরি করে ফেলেছেন প্রাক্তন বাংলার অধিনায়ক লক্ষ্মী। সেই নিয়মগুল্র মধ্যে অন্যতম হল,

১. প্রত্যেক ক্রিকেটারকে আসতে হবে সাইকেলে কিংবা নিজেদের গাড়িতে। কোনও গণপরিবহণে আসা যাবে না।
২. অনুশীলনে নামার আগে প্রত্যেক ক্রিকেটারের থার্মাল চেকিং হবে। তারপর মাঠে নামার অনুমতি মিলবে।
৩. সিনিয়র ক্রিকেটাররা স্বাস্থ্য বিধি মানার ক্ষেত্রে অনেক বেশি সাবধানী। তাই প্রথমে শুধু সিনিয়র ক্রিকেটাররাই অনুশীলন  করবে।
৪. খুদে ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে বলে আপাতত তাদেরকে অনুশীলনী ডাকা হচ্ছে না।
৫. অনুশীলনে যতটা সম্ভব ঘনঘন স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করে নিতে হবে সব ক্রিকেটারকে।
৬. অনুশীলনে সবসময় মুখে মাস্ক পড়ে থাকতে হবে। প্রত্যেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ফিজিক্যাল ট্রেনিং করবে।

আরও পড়ুনঃপ্রথা ভাঙল ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ,বাকি ম্যাচগুলিতে নয়া নিয়ম লাগু কর্তৃপক্ষের

আরও পড়ুনঃজর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে সামিল বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের প্লেয়াররা

সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি সঠিকভাবে বুঝিয়ে দিতে লক্ষ্মীরতন শুক্লার ডাকে অনুশীলনে এসেছিলেন বাংলা ক্রিকেট দলের প্রাক্তন ট্রেনার চিন্ময় রায়।লক্ষ্মী নিজে মাঠে হাজির থেকে দেখিয়ে দিলেন কি করে অনুশীলন করতে হবে। লক্ষ্মী জানান, "করোনা আবহের মধ্যেই স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে আস্তে আস্তে ফিরতে হবে। বাড়িতে থেকে ফিজিক্যাল ট্রেনিং খুব ভালোভাবে সম্ভব না তাই ক্যাম্প শুরু করলাম। মানসিকভাবে চাঙ্গা করার উদ্যোগ এটা। তবে সামাজিক দূরত্ব মানা বাধ্যতামূলক। ভার্চুয়ালি বল নিয়ে ক্যাচ ধরা কিংবা ব্যাট করা অনুশীলন হবে আপাতত।" এই অনুশীলনের একটি ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন লক্ষ্মীরতন শুক্লা। যেখানে পরিষ্কার দেখা যায় যে সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলছে ফিজিক্যাল ট্রেনিং।