আধুনিক ক্রিকেটের রান মেশিন বলা হয় তাকে। তুলনা করা হয় স্যার ডন ব্র্যাড ম্যান, ভিভ রিচার্ডস, সচিন তেন্ডুলকরদের সঙ্গে। বিশ্বের তাবড় তাবড় বোলররাও তাকে বল করতে গেলে ভাবেন কোথায় ফেলবেন। কী করে আউট হবেন তিনি সেই পথ বার করতে কাল ঘাম ছোটে বিরোধী দলের অধিনায়কদের। বিগত দশ বছরে ভেঙেছেন একের পর এক রেকর্ড। এই মুহূর্তে বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান তিনি৷ তিনি ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়াক বিরাট কোহলি। সেই বিরাটের ব্যাটকেই কীভাবে স্তব্ধ করা যায় অর্থাৎ আউট করা যায় সেই উপায় বাতলে দিলেন প্রাক্তন পাকিস্তান স্পিড স্টার শোয়েব আখতার। 
আরও পড়ুনঃটেনিস কোর্টে ফেরার অপেক্ষায় সানিয়া মীর্জা, লকডাউনে হাঁপিয়ে উঠেছেন টেনিস সুন্দরী
আরও পড়ুনঃঅনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত আইপিএল, সরকারি ঘোষণা বিসিসিআইয়ের, বাতিলও হতে পারে কোটিপতি লিগ

নিজের সেরা সময়ে ব্যাটসম্যানদের রাতের ঘুম কেড়ে নিতেন প্রাক্তন এই পাক স্পিডস্টার৷ তাঁর দ্রুততম ডেলিভারি বারবার স্টাম্প ছিটকে দিত সে সময় বিশ্বের তাবড় ব্যাটসম্যানদের৷ আখতারের গতি ও সুইংয়ে পরাস্ত হয়ে অনেকবারই প্যাভিলিয়নে ফিরে যেতে হয়েছে সচিন তেন্ডুলকর, রিকি পন্টিং ও জ্যাক কালিসের মতো ব্যাটসম্যানদের৷ সেই রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস কোহলিকে আউট করার উপায় বলে দিলেন তাঁর উত্তরসূরিদের৷ তিনি এখন খেললে, কীভাবে বিরাটকে আউট করতেন, এই প্রশ্নের উত্তরে শোয়েব বলেন,‘‘আমি যদি কোহালিকে বল করতাম, তা হলে ওকে ড্রাইভ করার মতো বল দিতাম। তা ছাড়া ক্রিজের অনেকটা বাইরে থেকে বল করতাম। কোহালি যাতে ড্রাইভ করে সেটাই হত আমার উদ্দেশ্য।’’ ড্রাইভ করতে গিয়ে সময়ের গণ্ডগোলে আউট হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে। কোহালির উইকেট নেওয়ার জন্য সেই উপায় অবলম্বন করতেন বলেই জানিয়েছেন শোয়েব। বিরাটের ড্রাইভ ক্রিকেটবিশ্বে প্রশংসা কুড়িয়েছে অনেক দিনই৷ তাঁর কভার ড্রাইভ-কে সচিনের ড্রাইভের সঙ্গে তুলনা করেছেন অনেকেই৷ কিন্তু ড্রাইভ করতে গিয়ে সময়ের গণ্ডগোলে অনেক সময়ই আউট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই বিরাটকে আউট করার এটি একটি অন্যতম উপায় বলে মনে করেন শোয়েব। আর এতেও ফল না-পেলে গতি দিয়ে বিরাটকে প্যাভিলিয়ন বা ড্রেসিংরুমের পথ দেখাতেন বলেও জানান প্রাক্তন পাকিস্তানি স্পিডস্টার৷ রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস’ বলেন, ‘ড্রাইভ করার বলে বিরাট প্রলোভনে পা না-দিয়ে ওকে আউট করার জন্য আমি ঘণ্টায় ১৫০ কিলোমিটার বেগে বল করতাম।’ শোয়েব এর আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় কোহলির প্রশংসা করেছেন৷ শুধু তাই নয়, বিরাটকে ‘আধুনিক সময়ের ব্র্যাডম্যান’ বলে মনে করেন পাকিস্তানি এই পেসার৷ এখন দেখার বিরাট কোহলিকে আউট করার জন্য শোয়েবের এই টিপস কোন কোন বোলারেরল কাজে লাগে।
আরও পড়ুনঃমোহনবাগানকে এখনই আইলিগ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণার দাবি রঞ্জিত বাজাজের, চিঠি ফেডারেশনকে