তখন বেটিং কান্ড নিয়ে উথাল পাতাল ভারতীয় ক্রিকেট। কোনও সিনিয়র জাতীয় দলের নেতা হতে রাজি নন। বোর্ড বাংলার বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের হাতে ভারতীয় ক্রিকেটের ব্যাটন তুলে দিয়েছিল। তারপর যেটা হয়েছে সেটা ইতিহাস। ভারতীয় ক্রিকেটের বর্তমানটা তাঁর হাতেই তৈরি। অধিনায়ক সৌরভ সেদিন দেখিয়েছিলেন তিনি কি করতে পারেন। এবার আবারও ভারতীয় ক্রিকেটের হটসিটে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।  তবে এবার মাঠে নেমে খেলার পালা নয়। এবার পালা মাঠের বাইরে থেকে গোটা ভারতীয় ক্রিকেটকে পরিচালনা করার। মহারাজ পারবেন কিনা এই প্রশ্ন তোলার মানুষ ভারতীয় ক্রিকেট মহল্লায় খুঁজে পাওয়া যাবে না। তবে হাতে সময়টা খুব কম। কারণ মাস দশেকের বেশি যে সভাপতির পদে থাকতে পারেন না সৌরভ। তবে সব থেকে কম বয়েসে সভাপতি হওয়া হোক বা প্রথম কোনও প্রাক্তন জাতীয় অধিনায়কের বোর্ড সভাপতি হওয়া। মহারাজ চমক দেখিয়েই বসতে চলেছেন বোর্ডের মসনদে। 

আরও পড়ুন - লর্ডসের গ্যালারি থেকে বিসিসিআইর মসনদ, সৌরভের দাদাগিরি চলছে চলবে

কিন্তু অসম্ভবকে সম্ভব করার আরেক নাম সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। সিএবি সভাপতি হওয়ার পর বাংলার ক্রিকেটে একাধিক পরিবর্তন আনেন সৌরভ। প্রাসাশক সৌরভের হাত ধেরেই এখন বৃষ্টিতে গোটা ইডেন ঢাকা থাকে। বৃষ্টি থামলে ম্যাচ শুরু করতে সময় লাগে না। ইডেনের উইকেট চরিত্রটা বদলে দিয়েছেন মহারাজ। স্পিন বোলিংয়ে ভর করে আর শুধু ম্যাচ জেতা যায় না। ক্রিকেটের নন্দন কাননে। ভাল ক্রিকেট খেলতে হয় ইডেনে ম্যাচ জেতার জন্য। পাশাপাশি ভারতীয় ক্রিকেটের নতুন টেন্ড, কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট সামালাতে সৌরভ কি ব্যবস্থা নিতে পারেন সেটাও দেখার। পাশাপাশি দেশের ক্রিকেটাররাও খুশি। কারণ এতদিনে ভারতীয় ক্রিকেটর সর্বোচ্চ পদে বসতে চলেছেন একজন ক্রিকেটার। এবার ভারতীয় ক্রিকেট তাকিয়ে সৌরভের দিকে। নতুন কিছু পাওয়ার অপেক্ষায় আছে ভারতীয় ক্রিকেট। তবে আশা যেমন আছে তেমন অশঙ্কাও আছে। বোর্ড রাজনীতিতে বাঘা বাঘা কর্তাদের সামলাতে হবে। মহারাজ রাজনীতির শিকার হবেন না তো? আগামী নয় মাস সেটাই দেখার পালা। তবে সৌরভ ভক্তরা জানেন, বাংলার বাঘ স্টেপ আউট করলে বলটা যে মাঠের বাইরেই যায়। 

আরও পড়ুন - ২০১৭ সালের পর ২০১৯, পুণের মাঠেই ফিরলেন সুপারম্যান, কৃতিত্ব দিচ্ছেন দলের পেসারদের

মহালায়ার দিন সৌরভ সবার সম্মতিতেই আবার বাংলা ক্রিকেটের মসনদে বসেছেন।  আর লক্ষ্মীপুজোর দিন মহারাজের বোর্ডের মসনদে বসাও প্রায় চুড়ান্ত। এখানেও হয়তো কোনও লড়াইয়ের মুখে পরতে হবে না সৌরভকে। ইডেন থেকে এবার সৌরভের অফিস চলে যাচ্ছে মুম্বাইয়ের ক্রিকেট সেন্টারে। সঙ্গে একরাশ প্রত্যাশা। বেটিংয়ের কালও ছায়া থেকে ভারতীয় ক্রিকেটকে তিনি বেড় করে এনেছিলেন। সৌরভ যখন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের দায়িত্ব নিচ্ছেন, তখনও সময়টা অন্য রকম। লম্বা সময় ধারে ভারতীয় ক্রিকেট সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত প্রশাসকদের হাতে ছিল। বিনোদ রাইরা এবার মহারাজের হাতে ভারতীয় ক্রিকেটর রাজপাট তুলে দেবেন। বিসিসিআই নতুন করে শুরু করবে পথ চলা। আর একসময় অধিনায়ক সৌরভ যেমন নতুন দিশা দেখিয়েছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটকে এবার পালা প্রশাসক সৌরভের। 

আরও পড়ুন - এখনই বিশ্রাম নয়, প্রোটিয়াদের হোয়াইট ওয়াশ করতে চায় কোহলি অ্যান্ড কোং