চরম সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট। সিনিয়র ক্রিকেটারদের অবসরের পর একাধিক তরুণ ক্রিকেটার এসেছেন দলে। তাদের আন্তর্জাতিক পর্যায়ে মানিয়ে নিতে কিছুটা সময় লাগবে। তাই ২২ গজের পারফরম্যান্সে কিছুটা হলেও চাপে আছে দক্ষিণ অফ্রিকা। ভারত সফরে প্রোটিয়াদের পারফরম্যানেস দেখে অনেক প্রাক্তনই কপাল চাপড়েছেন। কিন্তু এই সময়টা তরুণদের দিতে হবে। পাশাপাশি প্রশাসনিক দিক থেকেও সংকটের মধ্যে রয়েছে প্রটিয়া ক্রিকেট। শুক্রবার দুর্নীতির দায়ে পদ পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে থাবাং মোরেকে। তাঁর জায়গায় সাময়িক ভাবে আনা হয়েছে, জেকস ফলকে। 

আরও পড়ুন - অনুশীলন শুরু করলেন ফুটবলার দেব, কোচের ভূমিকায় বাইচুং ভুটিয়া

তবে প্রশাসনে যে অবস্থাই থাক না কেন, দেশের ক্রিকেটর উন্নতির জন্য বড় পদক্ষেপটচা নিয়েই নিল দক্ষিণ আফ্রিকা বোর্ড। দেশের প্রাক্তন অধিনায়ক গ্রেম স্মিথকে ক্রিকেট ডিরেক্টর হওয়ার জন্য রাজি করিয়ে ফেলেছেন ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার সভাপতি ক্রিশ নেজানি। তিনি জানিয়েছেন, চুক্তির কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা চলছে। যেটা প্রায় শেষ পর্যায়ে। আগামী বুধবার আনুষ্ঠানিক ভাবে স্মিথের পদে বসার কথা ঘোষণা করা হবে। চুক্তি সংক্রান্ত যা কিছু প্রশ্ন আছে তা মঙ্গলবারের মধ্যেই মিটিয়ে ফেলতে মরিয়া দুইপক্ষ। ডিসেম্বরের ২৬ তারিখ থেকে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ শুরু হচ্ছে সাউথ আফ্রিকার। 

আরও পড়ুন - রনজি ট্রফির উইকেট নিয়ে আসেনি আলাদা নির্দেশ, চিন্তিত পিচ কিউরেটররা

দক্ষিণ আফ্রিকার অন্যতম সফল অধিনায়ক ছিলেন গ্রেম স্মিথ। খুব কম বয়েসে দলের দায়িত্ব নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটের সুদিন ফিরিয়ে এনেছিলেন তিনি। দেশের হয়ে ১১৭টি টেস্টে নয় হাজারের ওপর রান করেছেন স্মিথ। একদিনের ক্রিকেটেও তাঁর ব্যাট থেকে এসেছে প্রায় সাত হাজার রান। স্মিথ যখন অধিনায়ক হয়েছিল তখন দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট একটা সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিল। এবার আরও একটা খারাপ সময় দেশের ক্রিকেটের দায়িত্ব নিচ্ছেন স্মিথ। গত কয়েক দিন থেকেই স্মিথকে দেশের ক্রিকেটের দায়িত্ব তুলে দেওয়ার দাবি উঠছিল। প্রাক্তন ইংল্যান্ড অধিনায়ক মাইকেল ভনও দাবি করেছিলেন স্মিথের হয়ে। এখন দেখার ক্রিকেট ডিরেক্টর পদে বসে প্রোটিয়া ক্রিকেটর সুদিন তিনি ফিরেয়ে আনতে পারেন কী না। 

আরও পড়ুন - হ্যাটট্রিক করে ব্যালেন ডি’অর সেলিব্রেট করলেন মেসি, পেছনে ফেললেন রোনাল্ডোকে