জীবনের ষষ্ঠ ব্যালেন ডি’অর ট্রফিটা জিতেছেন দিন কয়েক আগেই। তারপর শনিবারই মাঠে নেমেছিলেন বার্সেলোনার তারকা লিও মেসি। এমন একটা ম্যাচে মেসির থেকে একটা বিশেষ পারফরম্যান্স দাবি করেছিলেন তাঁর ভক্তরা। ফ্যানদের হতাশ করেননি লিও। শনিবার রাতে মালোর্কার বিরুদ্ধে খেলা ছিল বার্সেলোনার। আর এই ম্যাচে লা-লিগা কেরিয়ারের ৩৫ তম হ্যাটট্রিকটা করলেন লিও। ব্যালেন ডি’অর সেলিবিরেট করার পাশাপাশি রেকর্ডের নিরিখে পেছনে ফেলে দিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে। লা-লিগায় হ্যাটট্রিকের বিচারে এতদিন শীর্ষে ছিলেন রোনাল্ডো। ৩৪টি হ্যাটট্রিক ছিল সিআর সেভেনের। শনিবার রাতে সেই সংখ্যাটা টপকে গেলেন মেসি। এখন ফুটবল যুবরাজের দখলে আছে ৩৫টি হ্যাটট্রিক। শনিবারা রাতে মেসির এমন পারফরম্যান্সের পর তাঁর ভক্তরা স্বভাবতই খুশি

 

 

আরও পড়ুন - ডোপ টেস্টে ফেল, নির্বাসিত এনবিএ খেলা ভারতীয় বাস্কেটবল তারকা সতনাম সিং

মেসির এই অনবদ্য হ্যাটট্রিকের দৌলতে লা লিগায় মালোর্কার বিরুদ্ধে সহজেই জয় তুলে নিল বার্সেলোনা। ঘরের মাঠে তারা জিতল ৫-২ গোলে। খেলা শুরুর সাত মিনিটের মধ্যে সমালোচনার জবাব দিয়ে গোল করলেন ফ্রান্সের স্ট্রাইকার গ্রিজম্যান। এরপর ১৭ ও ৪১ মিনিটে পরপর দুটি গোল করলেন মেসি। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার ঠিক আগে আরও একটি গোল চাপিয়ে দিলেন লুই সুয়ারেজ। খেলা শেষ হওয়ার সাত মিনিট আগে নিজের তৃতীয় ও দলের পঞ্চম গোলটি করলেন লিও। এই জয়ের ফলে আবার লা লিগার শীর্ষ স্থানে উঠে এল বার্সেলোনা। ১৫ ম্যাচে ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে এক আসনে থাকলেও গোল পার্থক্যের বিচারে শীর্ষে বার্সোলান। 

 


আরও পড়ুন - দশ বছর পর টেস্ট দলে ডাক, পাক ক্রিকেটে নতুন নজির

লা- লিগায় শনিবার রাতে যখন মেসির দাপট চলছে তখন ইতালিতে মাঠে নেমেছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোও। মেসির লা-লিগায় হ্যাটট্রিকের হিসেবে তাঁকে ছাপিয়ে যাচ্ছেন। রোনাল্ডো চুপ করে বসে থাকেন কি ভাবে? লাজিও ঘরের মাঠে ২৫ মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। কিন্তু তাঁর দল সেই লিড ধরে রাখতে পারেনি। রোনাল্ডো গোল করার পর তাঁর দল তিনটি গোল হজম করে। এবারের লিগে প্রথম হারের মুখ দেখতে হল জুভেন্তাসকে। আর এই হারের ফলে দ্বিতীয় স্থানে নেমে যেতে হল জুভেকে। শীর্ষে থাকা ইন্টারমিলানের থেকে ২ পয়েন্টে পিছিয়ে গেল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর দল। 

আরও পড়ুন - বিরাটের ব্যাটিং দেখে উচ্ছ্বসিত অমিতাভ বচ্চন, আপনিই অনুপ্রেরণা বললেন বিরাট