২০১৯ আইসিসি বিশ্বকাপের পর থেকে ভারতীয় ক্রিকেটে একটা প্রশ্ন কমন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ধোনি আগামী দিনে কি করবেন? তিনি কি আর মাঠে ফিরবেন? নাকি ক্রিকেট কিট তুলে রাখবেন। নানা জল্পনা তৈরি হয়েছে, কিন্তু তাঁর মুখ থেকে এখনও কোনও কথা বেড়িয়ে আসেনি। বিশ্বকাপে পর থেকে জনতার মাঝেও আসেননি ধোনি। বরং ছুটির দিন বাড়িয়ে অবসর জল্পনায় আরও ঘি ঢেলেছেন মাহি। এবার তিনি সামনে এলেন। তবে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কোনও কথা বলললেন না। একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে জনতার সঙ্গে কথা বললেন মাহি। তবে ধোনির অবসরের জল্পনা নিয়ে একটাও কথা পাওয়া গেল না। 

আরও পড়ুন - টেস্ট ম্যাচের উন্মাদনায় ফুটছে ধোনির শহর, সম্মান বাঁচাতে প্রস্তুতি শুরু প্রোটিয়াদের

ধোনি বলছেন, তিনিও অন্যদের মতই। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পরিস্থিতিতে তাঁরও রাগ হয়, দুঃখ হয়। কিন্তু নিজের আবেগের ওপর অন্যদের থেকে বেশি নিয়ন্ত্রন আছে তাঁর। তাই সেই আবেগ প্রকাশ করেন না। এমনকি এই আবেগ গুলোর মধ্যেও নিজেকে আটকে রাখতে পছন্দ করেন না ধোনি। কারণ এই সবই মানুষকে গঠন মূলক কিছু করতে শেখায় না। তাই সেই পরিস্থিতি থেকে কি ভাবে বেড়িয়ে আসবেন, সেটাই অনেক বেশি করে ভাবেন। বলছেন দুটি বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক। 

আরও পড়ুন - ১৭ বছর বয়সে ডবল সেঞ্চুরি, নতুন ইতিহাস গড়লেন মুম্বাইয়ের যশস্বী

২০০৭ টি২০ বিশ্বকাপের স্মৃতিচারণা করে ধোনি বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকায় সেবার একটি নতুন নিয়ম ছিল বোল আউট। প্রত্যাকে দিন ওয়ার্ম আপের পরে বা আগে মজার ছলেই আমরা সেটা অনুশীলন করতাম। তবে একটা জিনিস ঠিক করে রখেছিলেম, যারা সব থেকে বেশি উইকেট হিট করবে তারাই প্রয়োজনে বোল আউটে অংশ নেবে। যেমনটা হয়েছিল পাকিস্তান ম্যাচ।’ ধোনির মতে যে কোনও বিষয়ে ফলাফলের থেকে পদ্ধতিই অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। 

আরও পড়ুন - বোর্ড সভাপতি সৌরভ, দাদিকে শুভেচ্ছা ছোট বাবুর