তাঁদের ঘরের ছেলে ভারতীয় ক্রিকেটের সব থেকে সফল অধিনায়ক। অথচ রাঁচীর মাঠে একটাও টেস্ট খেলা হয়নি মহেন্দ্র সিং ধোনির। এই আফসোসটা কখনই যাবে না রাঁচীর ক্রিকেট ভক্তদের। ২০১৭ সালে ভারত অস্ট্রেলিয়া সিরিজে প্রথমবার টেস্ট ক্রিকেট আয়োজন করা হয়েছিল রাঁচীর ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। তখন ধোনি টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। এবার ২০১৯ সালে ভারত দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট। এই সময়টাও রাঁচীর ক্রিকেট ভক্তদের কাছে বেশ জটিল। কারণ ঘরের ছেলে ধোনিকে রাঁচীর রাস্তা ঘাটে দেখা গেলেও জাতীয় দলের জার্সিতে আর দেখা যাবে কি না তা নিয়ে যে অনেক সংশয়। তবে সব জল্পনা সরিয়ে ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা তৃতীয় টেস্ট দেখার জন্য মুখিয়ে ঝাড়ঘন্ডের রাজধানী। 

আরও পড়ুন - ১৭ বছর বয়সে ডবল সেঞ্চুরি, নতুন ইতিহাস গড়লেন মুম্বাইয়ের যশস্বী

টিকিটের চাহিদা তুঙ্গে। দিন প্রতি ২৫০ টাকা থেকে শুরু করে ২৫০০ টাকা মূল্যের টিকিট বিক্রি হচ্ছে। সেই টিকিট পেতে স্টেডিয়ামের টিকিট কাউন্টারের বাইরে লম্বা লাইন। সব থেকে বেশি চাহিদা শনি ও রবিবারের টিকিটের। তৃতীয় টেস্ট খেলতে মঙ্গলবারই দক্ষিণ আফ্রিকা দল রাঁচী পৌছে গেছে। ভারতীয় দলের পাঁচ সদস্য এসেছেন। বাকিরা পুণে থেকে বাড়ি গিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবারের মধ্যে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন বিরাট, রোহিতরা। বুধবার পাঁচ ভারতীয় ক্রিকেটার মাঠ মুখো হননি। বৃহস্পতিবার থেকে অনুশীলনে নামবেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা।

আরও পড়ুন - বোর্ড সভাপতি সৌরভ, দাদিকে শুভেচ্ছা ছোট বাবুর 

২০১৭ সালে রাঁচীর মাঠে ডবল সেঞ্চুরি করেছিলেন চেতেশ্বর পূজারা। শতরান এসেছিল ভারতীয় উইকেটকিপার ঋদ্ধিমান সাহার ব্যাট থেকে। তবে সেবার ম্যাচ জিতেত পারেনি ভারতীয় দল। টেস্ট ম্যাচ বাঁচিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এবার দক্ষিণ আফ্রিকার পরীক্ষা। সিরিজে ২-০তে পিছিয়ে আছে তারা। রাঁচীতে হারলে হোয়াইট ওয়াশ হওয়ার লজ্জার মুখে পরতে পবে প্রোটিয়াদের। কোনও ভাবেই সেটা চাইছে না তারা। তাই বুধবার থেকেই মাঠে নেমে পরেছেন রাবাডারা। সঙ্গে একটাই আফসোস, ভারতীয় বোলারদের মত রিভার্স সুইং করতে পারেছ না তাঁরা। 

আরও পড়ুন - শুরু হচ্ছে আইএসএল ৬, এক নজরে চেন্নাইয়িন এফসি