২০১১ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনাল ভারতের কাছে বিক্রি করে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রী  মহিন্দানন্দা আলুথগামাগের এই অভিযোগের পর তোলপার হয়েছিল ক্রিকেট বিশ্ব। পরে তার বক্তব্য থেকে কিছুটা সরে আসলেও, এই গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগকে ছোটভাবে নেয়নি শ্রীলঙ্কার প্রশাসন। আলুথগামাগের অভিযোগের ভিত্তিতে ২৪ জুন তদন্তের নির্দেশ দেয় শ্রীলঙ্কা ক্রীড়ামন্ত্রক। এর পরে ক্রীড়ামন্ত্রকের অধীনে পুলিশের একটি বিশেষ কমিটি এই তদন্ত শুরু করে। তদন্ত প্রক্রিয়ায় এর আগে ১৯৯৬ সালে শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ জয়ী দলের অন্যতম সদস্য তথা দেশের ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচক কমিটির প্রাক্তন চেয়ারম্যান অরবিন্দ ডি সিলভা টানা ৬ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিস। জেরা করা হয়েছে ২০১১ সালের শ্রীলঙ্কা দলের সদস্য ফুল থরঙ্গাকে। এবার এক, দুই নয়, প্রায় ১০ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হল ২০১১ সালে শ্রীলঙ্কা দলের অধিনায়ক কুমারা সঙ্গাকারাকে।

আরও পড়ুনঃবিদেশের মাটিতে হতে পারে আইপিএল,ইঙ্গিত দিলেন এক বোর্ড কর্তা

এইভাবে  সঙ্গাকারাকে ম্যারাথান জিজ্ঞাসাবাদ করায় দ্বীপরাষ্ট্রে আছড়ে পড়ে বিক্ষোভও। ঘটনায় ক্রীড়ামন্ত্রকের কার্যালয়ের বাইরে প্ল্যাকার্ড হাতে বিক্ষোভ দেখায় দেশের বিরোধী দলের যুব শাখার সদস্যরা। ভিত্তিহীন অভিযোগ মোতাবেক দেশের কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের এহেন জিজ্ঞাসাবাদের ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন তারা। ঘটনার নিন্দা করে বিরোধী দলের প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী সাজিথ প্রেমদাসা। কুমার সঙ্গাকারা সহ তারকা ক্রিকেটারদের জিজ্ঞাসাবাদের বিরোধীতা করে সরকারের নিন্দা করেন তিনি। তিনি লেখেন, ‘কুমার সঙ্গাকারা সহ দেশের ক্রিকেট তারকাদের ধারাবাহিক হেনস্থার ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এব্যাপারে সরকারের ভূমিকা অত্যন্ত নিন্দনীয়।’ এদিন সঙ্গাকারার বয়ান রেকের্ড করেছে তদন্তকারীরা। প্রয়োজনে আবার ডাকা হতে পারে সঙ্গাকারাকে। তদন্তে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন অধিনায়ক।

আরও পড়ুনঃগার্ড অফ অনার ও চার গোলের লজ্জার হার,ইপিএল চ্যাম্পিয়নদের উপহার দিল ম্যান সিটি

আরও পড়ুনঃহাড্ডাহাড্ডি ম্যাচে র‍্যামোসের পেনাল্টি থেকে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করলো রিয়াল

শুধু অরবিন্দ ডি সিলভা, উপুল থারাঙ্গা  ও সঙ্গাকারা নয়, ২০১১ বিশ্বকাপ তদন্তে ডেকে পাঠানো হয়েছে আরেক কিংবদন্তি মাহেলা জয়বর্ধনেকেও।  আলুথগামাগের অভিযোগের পর বিরোধীতায় সরব হয়েছিলেন জয়াবর্ধনে। বলেছিলেন নির্বাচন সামনে তাই সার্কাস শুরু হয়ে গিয়েছে। এবার তাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করতে চলেছে তদন্তকারীরা। দ্বীপরাষ্ট্রে নির্বাচনের আগে ৯ বছর আগের ক্রিকেট বিশ্বকাপে গড়াপেটার অভিযোগে তদন্ত গুরুক্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছে বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞরা।