করোনা ভাইরাস আতঙ্কের জেরে আইপিএলের ভবিষ্যত নিয়ে আগেই প্রশ্ন চিহ্ন উঠে গিয়েছিল। এবার সেই সংশয়কে আরও জোরদার করল কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্ত। সংক্রমণ রুখতে ভিসার বিষয়ে কড়া পদক্ষেপ কেন্দ্রীয় সরকারের। আগামি ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত সব ট্যুরিস্ট ভিসা বাতিল করার সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের। যার ফলে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত আইপিএলে কোনও বিদেশি ক্রিকেটার পাওয়া যাবে না। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই মাথায় হাত পড়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলির। কারণ টুর্নামেন্ট হলেও যদি বিদেশী ক্রিকেটাররা এপ্রিলের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত না খেলেন, তাতে টুর্নামেন্টের জৌলুস অনেক কমবে। বিসিসিআই প্রসেডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এর আগে একাধিকবার জানিয়েছেন নির্দিষ্ট সময়েই হবে আইপিএল। আইপিএলের ভবিষ্যৎ নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু কেন্দ্রের ট্যুরিস্ট ভিসা বাতিলের সিদ্ধান্তের আইপিএলের ভবিষ্যৎ নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন তুলে দিল বলেই মনে করছে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুনঃকরোনায় আক্রান্ত জুভেন্টাসের ডিফেন্ডার ড্যাানিয়েল রুগানি, পর্যবেক্ষণে অন্যান্য প্লেয়াররা

বিদেশি ক্রিকেটাররা ফরেন বিজনেস ভিসা ক্যাটেগরির মধ্যে পড়েন। সরকারের নির্দেশিকা অনুযায়ী, আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত তাঁদের ভিসা অনুমোদন পাবে না। কেন্দ্রের এহেন সিদ্ধান্তের পর নড়ে চড়ে বসেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও। বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, 'কেন্দ্রী সরকারের নির্দেশিকা আমরা পেয়েছি। দু-একদিনের মধ্যেই এপ্রিলের মাঝামাঝি পর্যন্ত বিদেশি ক্রিকেটারদের না পাওয়ার বিষয়টি পরিষ্কারভাবে জানাতে পারব। যদিও অপর এক বিসিআই কর্তা জানিয়য়েছেন ভারতে খেলতে আসা দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের প্লেয়ারদের ভারতে রেখে দেওয়ার চেষ্টা করা যেতে পারে। তার ফলে প্রোটিয়া ক্রিকেটাররা যে যে দলের হয়ে আইপিএলে খেলে তাদের কোনও সমস্যা হবে না। এছাড়াও শনিবার আইপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের মিটিংয়ে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হবে বলেও জানানো হয়েছে বোর্ডের তরফে। দর্শকশূন্যমাঠে আইপিএল হবে কিনা সে বিষয়েও সিদ্ধান্ত হতে চলেছে শনিবারের মিটিংয়ে।

আরও পড়ুনঃকরোনা আতঙ্কের থাবা ২২ গজে, স্থগিত হয়ে গেল এশিয়া বনাম বিশ্ব একাদশ ম্যাচ

অপরদিকে, আইপিএল বাতিলের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে  একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছেন আইনজীবী মোহনবাবু আগরওয়াল। জরুরি ভিত্তিতে এই মামলার শুনানির দাবিও জানান তিনি। যদিও আদালত সেই দাবি খারিজ করে হোলির ছুটির পর মামলার শুনানি হবে বলে জানিয়েছে। আগামী ১৬ মার্চ এই মামলাটি সুপ্রিম কোর্টের রেগুলার বেঞ্চে তোলা হতে পারে। মামলাকারীর দাবি, এই পরিস্থিতিতে আইপিএল আয়োজন করলে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা কয়েকগুণ বেড়ে যাবে।

আরও পড়ুনঃশনিবার গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে স্থির হবে আইপিএল ২০২০ এর ভবিষ্যৎ

ভারতে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ ছাড়িয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অর্থা হু জানিয়েছে পৃথিবী জুড়ে ছড়িয়ে পডছে সংক্রমণ। বাতিল করা হয়ছে দেশে বিদেশের নানা স্পোর্টস ইভেন্ট। প্রশ্ন তৈরি হয়েছে টোকিও অলিম্পিকের ভবিষ্যৎ নিয়েও।  দিন যত এগোচ্ছে ততই আইপিএলের ভবিষ্যতের আকাশে ঘন হচ্ছে কালো মেঘের ঘনঘটা। এত ঝুঁকি নিয়ে আইপিএল করা কী ঠিক হবে। উঠছে সেউ প্রশ্নও।