আন্তর্জাতিক ক্রীড়া ক্ষেত্রে ক্রমশ থাবা চওড়া করছে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক। ক্রিকেট, ফুটবল, অলিম্পক থেকে রাগবি বাদ নেই কোনও কিছুই। প্লেয়ারদের ভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে নেওয়া হচ্ছে একাধিক পদক্ষেপ। কোথাও ফাঁকা স্টেডিয়ামে হচ্ছে ম্যাচ, কোথাও আবার স্থগিত রাখা হয়েছে সমস্ত ধরনের খেলা। কিন্তু এতকিছুর পরও, মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচান গেল না এক তারকা ফুটবল প্লেয়ারকে।  ইতালির জুভেন্তাস ফুটবল ক্লাবের ডিফেন্ডার ড্যানিয়েল রুগানির শরীরে মিলল করোনা ভাইরাস। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকই হৈ চৈ পড়ে গিয়েছে ক্রীড়া বিশ্বে। একাধিক ব্যবস্থা নিলেও আরও নড়ে চড়ে বসেছে ইতালির ফুটবল মহল।

আরও পড়ুনঃ করোনা আতঙ্কের থাবা ২২ গজে, স্থগিত হয়ে গেল এশিয়া বনাম বিশ্ব একাদশ ম্যাচ

ইতালিতে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ ইউরোপীয় দেশগুলির মধ্যে সবথেকে বেশি। ১২ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এই মারণ ভাইরাসে। ইতিমধ্যেই ইতালির প্রধান ফুটবল লিগ সিরি-এ অনির্দিষ্ট কালের জন্য স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। রুগানির করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবরটিও ক্লাবের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে। জুভেন্টাসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে,'নিয়ম অনুযায়ী রুগানির সবরকম চিকিতৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাখা হয়েছে চিকিৎসকদের নজরদারিতে। রুগানির সংস্পর্শে আসা বাকিদের পরীক্ষা চলছে।' সোশাল মিডিয়ায় রুগানি নিজে জানিয়েছেন,আপনারা খবরটি পেয়েছেন। আমাকে নিয়ে যারা চিন্তায় রয়েছেন তাদের শান্ত থাকার অনুরোধ করছি । এই জরুরি অবস্থায় চেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার জন্য চিকিৎসক ও নার্সদেরও ধন্যবাদ জানিয়েছেন রুগানি। 

আরও পড়ুনঃ শনিবার গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে স্থির হবে আইপিএল ২০২০ এর ভবিষ্যৎ

আরও পড়ুনঃ করোনা ভাইরাসের জের, সংক্রমণ বাঁচাতে মানতে হবে একাধিক বাঁধা নিষেধ

শুধু রুগানি নন, এর আগে জার্মান ক্লাব হ্যানোভারের ডিফেন্ডার টিমো হুর্বাস আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। জুভেন্টাস ক্লাবের অনূর্ধ্ব ২৩ দলের খেলোয়ার গত মাসে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারপর থেকেউ ক্লাবের সবরকম অনুশীলন বন্ধ রাখা হয়েছে। ইতালিতে নেই রুগানির সতীর্থ তথা পর্তুগীজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। আপাতত নিজের জন্মভূমি মাদেইরায়য়ে ফিরে গেছেন সি আর সেভেন। জরুরি  অবস্থার উন্নতি হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো।