১৯ ডিসেম্বর শহর কলকাতায় বসতে চলেছে আইপিএল নিলামের আসর। এবারই প্রথম আইপিএল নিলামের আসর বসছে শহরে। সব দিক থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলেও গত কয়েক দিনের অবস্থা কিছুটা হলেও চিন্তা তৈরি করেছে আয়োজকদের মধ্যে। নাগরকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে দেশের একাধিক রজ্যের পাশাপাশি বাংলার একটা অংশ বিক্ষোভে সামিল হয়েছে। রাজ্যের বিশ কিছু জায়গায় পরিস্থিতি ভয়াবহ কারও নিয়েছিল। সংবাদ মাধ্যমে উঠে এসেছে ট্রেন-বাসে আগুনের ছবি। সেটা দেখই কলকাতার পরিস্থিতি নিয়ে কিছুটা হলেও চিন্তায় পরেছে আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজিরা। গোটা পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছেন তারা। এমনটাই জানিয়েছেন বোর্ডের কর্তারা। 

আরও পড়ুন - বিরাট কোহলি ক্রিকেটের ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, বলছেন ব্রায়ান লারা

তবে আইপিএল ফ্রাঞ্চাইজি কর্তাদের অভয় দেওয়ার কাজ চলছে । কারণ গত কয়েক দিনের পরিস্থিতির তুলনায় সোমবার অনেকটাই শান্ত বাংলা। রাজ্যের শ্বাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যেয়ের নেতৃত্বে সিএবি বিরোধী মিছিলের ডাক দিয়েছিলেন। তিনি আসরে নেমে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রনে আনতে পেরেছেন বলেই খবর। মঙ্গলবারও মিছিল করবেন মমতা। তিনি প্রথম থেকেই বলে আসছেন শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের কথা। সেই পথটা নিজেই দেখাচ্ছেন মমতা। রাজ্যের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে প্রশাসনকে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। আর এই অবস্থাই কিছুটা হলেও আশ্বস্ত করছে সবাইকে। 

আরও পড়ুন - খোঁজ পাওয়া গেল ভক্তের, সচিনের সঙ্গে দেখা করনোর উদ্যোগ হোটেল কতৃপক্ষের

আয়োজকরা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি নিয়ে কিছুটা চিন্তা থাকলেও নিলাম পিছিয়ে দেওয়া বা স্থান বদলের সম্ভাবনা নেই। এমনকি কোনও ফ্রাঞ্চাইজির পক্ষ থেকে নিরাপত্তা সংক্রান্ত বা স্থান বা তারিখ পরিবর্তন সংক্রান্ত কোনও চিঠিও পায়নি ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। সুত্রের খবর ১৮ তারিখ শহরে চলে আসবেন অধিকাংশ দলের কর্তারা। ১৯ তারিখ নিলাম সেরে তারা আবার ফিরে যাবেন নিজেদের শহরে। কয়েকটি দলের কর্তারা যাবেন ২০ তারিখ। তাই কোনও সমস্যা হওয়ার কথা নয়। বোর্ডের কর্তারাও আশাবাদী পরিস্থিতির দিকে নজর থাকলেও নিলেম বাতিল করতে হবে না তাদের। সব নির্দিষ্ট সময় মতই হবে। ১০ তারিখ দুপুর তিনটে থেকে আইপিএলের মিনি নিলামে ভাগ্য নির্ধারণ করা হবে ৩৩২ জন ক্রিকেটারের। 

আরও পড়ুন - বুন্দেশলিগার আসরে ভারতীয় বংশোদ্ভূত ফুটবলার, খেললেন বার্য়ান মিউনিখের হয়ে