টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাতিলের ঘোষণাতেই ঢাকে কাঠি পড়ে গিয়েছিল আইপিএলের। কারণ টি২০ বিশ্বকাপ ছাড়া আরও কোনও সমস্যা ছিল না বিসিসিআইয়ের সামনে। সরকারি ভাবে ঘোষণা না হলেও, ইতিমধ্যেই আইপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ব্রিজেশ প্যাটেল জানিয়ে দিয়েছেন ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে আইপিএল ২০২০। ফাইনাল ৮ নভেম্বর। বিসিসিআইয়ের তরফ থেকে আইপিএল আয়োজনের চিঠি পেয়েছে বলেও জানিয়ে দিয়েছেন আরব আমিরশাহির ক্রিকেট বোর্ড। এই পরিস্থিতিতে আইপিএল নিয়ে আগামী ২ অগাস্ট রবিরা আইপিএল নিয়ে চূড়ান্ত বৈঠকে বসছে টুর্নামেন্টের গভর্নিং কাউন্সিল।

আরও পড়ুনঃকার পরামর্শে ক্যান্সারকে হারিয়ে মাঠে ফেরার অনুপ্রেরণা পেয়েছিলেন,জানালেন যুবরাজ সিং

টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে আইপিএল গভনিং কাউন্সিলের বৈঠকে আইপিএল চেয়ারম্যান ব্রিজেশ প্যাটেল সঙ্গে উপস্থিত থাকবেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, সচিব জয় শাহ, কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল এবং অনান্য আধিকারিকরা৷ ২ অগাস্টের বৈঠকের আইপিএলের সূচি ঘোষণা হতে পারে পারে বলে খবর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সূত্রে। গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে টুর্নামেন্টের পূর্ণাঙ্গ সূচির ছাড়াও একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ঠিক হতে চলেছে। তাদের মধ্যে অন্যতম হল,ভেন্যু, ক্রিকেটারদের ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা, টিম গুলিকে কোয়রান্টিনে রাখার ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা হতে পারে, টিমগুলির হোটেলে থাকার ব্যবস্থা সহ আরও একাধিক বিষয়। 

আরও পড়ুনঃকরোনা মহামারীর জের, প্রশ্নে আইসিসির টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ভবিষ্যৎ

আরও পড়ুনঃ১৪ বছরের আন্তর্জাতিক কেরিয়ার,তার বোলিংয়ে মুগ্ধ সচিনও, এখন লোকের বাড়ি বাড়ি এসি সারান রে প্রাইস

এছাড়াও সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা তা হল, করোনা আবহে সকলের সুরক্ষা। জানা যাচ্ছে, চিকিৎসার জন্য বোর্ডের একটি কেন্দ্রীয় দল থাকবে। তবে ক্রিকেটারদের করোনা পরীক্ষা এবং তাঁদের নিরাপদ রাখার দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট ফ্র্যাঞ্চাইজিরই। ক্রিকেটারদের করোনা থেকে দূরে রাখতে ‘ভার্চুয়াল বাবল’ তৈরির পরিকল্পনা আগেই করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক ম্যাচের সময় যে ভাবে টিমগুলোকে যেমন ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তা বলয়ের ঘেরাটোপে রেখে দেওয়া হয়, এখানেও অনেকটা তেমনই হবে। ক্রিকেটাররা মাঠে যাওয়া ছাড়া হোটেল ছেড়ে বেরোতে পারবেন না। কারও সঙ্গে দেখাও করতে দেওয়া হবে না ক্রিকেটারদের। ফলে ২ অগাস্টের বৈঠক আইপিএল জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।