আইপিএল থেকে ভিভোর বিদায়ের পর জল্পনা চলছিল আইপিএলের নতুন টাইটেল স্পনসর কে হতে চলেছে। অবশেষে মঙ্গলবার আইপিএলের নতুন টাইটেল স্পনসর হিসেবে নাম ঘোষণা করা হয় ফ্যান্টাসি গেমিং অ্যাপ ড্রিম ইলেভেনের। এই মরসুমের জন্য নয়া সংস্থার সঙ্গে ২২২ কোটি টাকার চুক্তি হয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। একইসঙ্গে ২০২২ সাল পর্যন্তও আইপিএলের টাইটেল স্পনসর থাকতে পারে ড্রিম ইলেভেন। যদি পরের বছর ভিভো ফিরে না আসে। সেক্ষেত্রে আগামি ২ বছরের জন্য ২৪০ কোটি টাকা করে দেবে আইপিএলের নয়া টাইটেল স্পনসর ড্রিম ইলেভেন। 

আরও পড়ুনঃনরেন্দ্র মোদীর অনুরোধে অবসর ভাঙতে পারেন ধোনি, রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেসের বয়ানে নেট দুনিয়ায় ঝড়

আইপিএল শুরু এক মাস আগে নয়া টাইটেল স্পনসর নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় সস্তির নিঃশ্বাস ফেলছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন বোর্ড। কিন্তু সেই সম্পূর্ণ স্বস্তি হয়তো বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না বিসিসিআইয়ের। অভিযোগ উঠল আইপিএলের নয়া স্পনসরেও রয়েছে চিনা যোগ। এই ফ্যান্টাসি গেমিং অ্যাপটি ২০০৮ সালে তৈরি করেছিলেন  ভবিত শেঠ এবং হর্ষ জৈন। বর্তমানে ৮ কোটির বেশি মানুষ ব্যবহার করেন এই অঅ্যাপটি। এই সংস্থায় কালারি ক্যাপিটাল,মাল্টিপেলস এবং স্টেডভিউ ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের মতো সংস্থার লগ্নি আছে। আর লগ্নি রয়েছে  চিনের গেমিং সংস্থা টেনসেন্ট্র। যা নিয়েই তৈরি হয়েছে যাবতীয় বিতর্ক। বিসিসিআইয়ের এক কর্তা জানিয়েছেন,'ভারতীয় বিনিয়োগকারী হল কালারি ক্যাপিটাল এবং মাল্টিপেলস ইক্যুইটি। এমনকী ড্রিম ১১-এর শুধুমাত্র ভারতীয়দের ব্যবহারের জন্য পাওয়া যায়। শুধুমাত্র একঅঙ্কের নগণ্য শেয়ার আছে টেনসেন্টের।'

আরও পড়ুনঃনা সচিন, না সৌরভ, ভারতের ইতিহাসে প্রথম এই সম্মান পেতে চলেছেন ধোনি

আরও পড়ুনঃবিসিসিআইয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের, বিদেশ নয় দেশের মাটিতে চাই আইপিএল

সূত্রের খবর চিনা গেমিং সংস্থা টেনসেন্ট ২-১৮ সালে ড্রিম ১১ সংস্থাটিতে ১০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করেছে। ফলে নগন্য শেয়ার হলেও, আইপিএলের টাইটেল স্পনসরে চিনা যোগ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। লাদাখা সীমান্তে ভারত-চিন সংঘর্ষের পর অবনতি হয় দুদেশের সম্পর্কের। দেশ জুড়ে চিনা দ্রব্য বর্জনের ডাক ওঠে। কেন্দ্রীয় সরকারও ৫৯টি চিনা অ্যাপ ভারতে নিষিদ্ধ করে। একইসঙ্গে দাবি ওঠে আইপিএলের টাইটেল স্পনসর চিনা সংস্থা ভিভোকে সরিয়ে দেওয়ার। ভিভোকে না সরালে আইপিএলের বয়কটের ডাকও ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অবশেষে দেশ জুড়ে প্রবল চাপের কাছে নতি স্বীকার করে ভিভোকে সরিয়ে নতুন টাইটেল স্পনসর হিসেবে ড্রিম ইলেভেনকে বেছে নেয় বিসিসিআই। কিন্তু সেই সংস্থারও চিনা যোগ থাকার  ফলে অস্বস্তিতে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।