পাঞ্জাবকে ভারত সেরা করার লড়াইতে এবার কর্নাটক ব্রিগেড। কয়েক মাস আগেই প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক অনিল কুম্বলেকে দলের হেড কোচ হিসেবে নিযুক্ত করেছিল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। আর বৃহস্পতিবার কলকাতায় নিলাম শেষে কুম্বলে জানিয়ে দিলেন আগামী মরসুমে প্রীতির দলের নেতৃত্বে থাকতে চলেছেন ভারতীয় দলের ওপেনার কেএল রাহুল। এই সিদ্ধান্তের পর অনেকেই মজা করে বলছেন কর্নাটকের দুই তারকার হাতে এবার পাঞ্জাবের ভাগ্য। কারণ কোচ কুম্বলে ও অধিনায়ক রাহুল, দুজনই যে কর্নাটকের মানুষ। 

 

 

আরও পড়ুন - বুমরার ফিটনেস টেস্ট নিয়ে এনসিএ প্রধান রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে কথা বলবেন সৌরভ

তবে কর্নাটকের পাশাপাশি ওয়েস্ট ইন্ডিজের তিন ক্রিকেটারও এবার খেলবেন পাঞ্জাব দলের হয়ে। বৃহস্পতিবারের নিলামে সব থেকে বেশি টাকা নিয়ে বসেছিল পাঞ্জাব। আর নিলাম থেকে মোট ৯ জন ক্রিকেটারকে তুলে নিল তারা। 
গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (অলরাউন্ডার),  শেল্ডন কট্রেল (বোলার),  দীপক হুডা (ব্যাটসম্যান), ঈশাণ পোড়েল (বোলার), রবি বিষ্ণোই (বোলার), জিমি নিশম (অলরাউন্ডার), ক্রিস জর্ডন (অলরাউন্ডার), তেজিন্দর সিং (অলরাউন্ডার), শিমরন সিং (উইকেটকিপার)

 

 

আরও পড়ুন - আগামী বছরও দিল্লি’র নেতৃত্বে শ্রেয়স আইয়ার, নিলাম শেষে ঘোষণা কর্ণধারের

একাধিক ক্রিকেটারকে ছেড়ে দিয়ে নতুন ভাবে মিনি নিলাম থেকে দল গুছিয়ে নিতে চেয়েছিল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। সেই লক্ষ্য তারা যে সম্পুর্ণ ব্যর্থ সেটা বলা যাবে না। আবার খুব সফল সেটাও নয়। ক্রিকেট পন্ডিততেদর মতে, মোটের ওপর ঠিকঠাক দল হিসেবে দেখা যেতে পারে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে। তাদের হাতে যা অস্ত্র আছে সেটা ক্লিক করে গেলে পাঞ্জাবের থেকে ভয়ঙ্কর দল আর পাওয়া যাবে না। কিন্তু ছন্দ না পেলে অনান্য বারের মতই অবস্থা হতে পারে তাদের। 

 

 

দল কেমন পারফর্ম করছে সেটা অনেকটাই নির্ভর করছে দলের কোচ অনিল কুম্বলের দল পরিচালনার ওপর। দলের সঠিক কম্বিনেশন খুঁজে নেওয়াটা তাঁর কাছে একটা বড় চ্যালেঞ্জ। পাশাপাশি অধিনায়ক হিসেবে কেএল রাহুল কতটা চাপ নিতে পারেন সেটাও দেখার বিষয়। দলের অন্যতম মালকিন প্রীতি জিন্টা যদিও আশাবাদী পাঞ্জাব এবার ট্রফি জিততে পারবে। একবার রানার্স হয়েছে তারা। সেটাই এখনও পর্যন্ত পাঞ্জাবের সেরা আইপিএল পারফরম্যান্স। 

আরও পড়ুন - ২০১৯ সালের এক নম্বর সেলেব বিরাট কোহলি, হারালেন সলমন-অক্ষয়দের