সোমবারই পাকিস্তানের তিন ক্রিকেটার শাদাব খান, হায়দার আলি, হরিশ রউফ করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। মঙ্গলবারের রিপোর্ট ধরা পড়ে মারণ ভাইরাসে আক্রকান্ত হয়েছেন আরও সাতজন।  এই সাত ক্রিকেটার হলেন- ফকর জামান, মহম্মদ হাফিজ, ওয়াহাব রিয়াজ, মোহম্মদ রিজওয়ান, ইমরান খান, কাশিফ ভাট্টি এবং মোহম্মদ হাসনাইন। এই সাত ক্রিকেটারের পাশাপাশি দলের সাপোর্ট স্টাফ ম্যাসিওর মালাং আলিরও কোভিড-১৯ পজিটিভ আসে। যেই রিপোর্ট আসার পরই চক্ষু চড়ক গাছ হয়ে যায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের। আতঙ্ক গ্রস্ত হয়ে পড়ে গোটা পিসিবি।

আরও পড়ুনঃনতুন করে আরও আক্রান্ত ৭ জন,পাক ক্রিকেট দলের মোট ১০ জন প্লেয়ার করোনা আক্রান্ত

কিন্তু একদিন যেতে না যেতেই মঙ্গলবারই রিপোর্ট নেগেটিভ আসল মহম্মদ হাফিজের। মঙ্গলবার পিসিবির তরফ থেকে করা করোনা পরীক্ষায় হাফিজের রিপোর্টও পজেটিভ এসেছিল। বুধবার ব্যক্তিগতভাবে ফের কোভিড ১৯ টেস্ট করান মহম্মদ হাফিজ। সেই টেস্টের রিপোর্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়ে মহম্মদ হাফিজ লেখেন,'মঙ্গলবার পিসিবি-র পরীক্ষায় রিপোর্টে কোভিড-19 পজিটিভ আসার পর আমি আবার ব্যক্তিগত উদ্যোগে সপরিবারে গিয়ে পরীক্ষা করাই। আলহামদুলিল্লাহ্ দ্বিতীয় পরীক্ষায় রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। আমাদের সবাইকে আল্লাহ রক্ষা করবে।' পরপর দুদিন ভিন্ন রিপোর্ট কিছুটা অবাকও করেছে পাক তারকাকে।

 

 

আরও পড়ুনঃপরিবার সহ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত 'অন্য সচিন'

আরও পড়ুনঃনিজের হাতেই প্যান্ট খুলে মহিলার সঙ্গে নাচ মারাদোনার,নয়া বিতর্কে 'হ্যান্ড অফ গড',দেখুন ভাইরাল ভিডিও

যদিও মঙ্গলবারই আক্রান্ত দশ পাক ক্রিকেটারকেই কঠোরভাবে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে পিসিবির তরফ থেকে। টিমের মেডিক্যাল স্টাফদের নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে বলা হয়েছে আক্রান্ত তারকাদের সঙ্গে। পিসিবি-সূত্রে জানা গিয়েছে , শোয়েব মালিক, ওয়াকার ইউনিসের এখনও করোনা পরীক্ষা হয়নি। পাশাপাশি মহম্মদ হাফিজকেও কোয়ারেন্টাইনে থেকে ফের কয়েকবার পরীক্ষা করার কথা বলা হেয়ছে পিসিবর তরফ থেকে।