আরও এক পাকিস্তানি ক্রিকেটার বিয়ে করতে চলেছেন এক ভারতীয় মহিলাকে। সবকিছু ঠিক থাকলে পাক পেসার হাসান আলির সঙ্গে বিয়ে হতে চলেছে হরিয়ানার মেওয়াট জেলার শামিয়া আর্জুর। জানা গিয়েছে আগামী ২০ অগাস্ট, দুবাইয়ের আটলান্টিস পাম হোটেলে তাঁদের বিবাহ হবে।

তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসান জানিয়েছেন, এখনও কিছু পাকা হয়নি। দুই পরিবারের মধ্যে কথাবার্তা চলছে। দেখা সাক্ষাত মেটার পরই সবটা চুড়ান্ত করা হবে। আর তারপরই জনসমক্ষে বিয়ের কথা জানাবেন।  

হরিয়ানার মেওয়াটে জন্মালেও দীর্ঘদিনই ভারতের বাইরে থাকেন শামিয়া। হরিয়ানার এক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এরোনটিক্স-এ ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করে তিনি এখন এক দুবাইয়ের এক বেসরকারি বিমান সংস্থায় কাজ করেন। আপাতত দুবাইয়েই থাকেন তিনি। সেখানেই ক্রিকেট খেলতে গিয়ে এক ঘনিষ্ট বন্ধুর মাধ্যমে শামিয়ার সঙ্গে আলাপ হয়েছিল হাসানের। বন্ধুত্ব ক্রমে প্রেমে পরিণত হয়। তবে শামিয়ার পরিবার থাকে নয়াদিল্লিতে। বিয়ে উপলক্ষ্যে শীঘ্রই তারা দুবাই পাড়ি দেবেন।

পাকিস্তানের হয়ে এখনও পর্যন্ত হাসান আলি ৯টি টেস্ট ও ৫৩টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন। ২০১৭ সালে পাকিস্তানের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ের পিছনে এই ২৫ বছরের ক্রিকেটারের বড় ভূমিকা ছিল। তবে সেই ফর্ম ধরে রাখতে পারেননি। সদ্য সমাপ্ত আইসিসি বিশ্বকাপে প্রথম দিকে প্রথম একাদশে ছিলেন তিনি। কিন্তু টুর্নামেন্টের মাঝামাঝি সময় থেকে খারাপ ফর্মের জন্য বাদ পড়ে যান।

তবে ভারতীয় মহিলাকে বিয়ে করার বিষয়ে হাসানই প্রথম পাক ক্রিকেটার নন। তার আগে ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জাকে বিয়ে করেছিলেন সদ্য অবসর নেওয়া পাক অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক। তারও আগে ভারতীয় মহিলাকে ঘরণী করেছিলেন প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার জাহির আব্বাস ও মহসিন হাসান খান।