আর কিছু মুহূর্তের অপেক্ষা। শুরু হতে চলেছে বাংলার ৩০  বছরের স্বপ্ন পূরণের লড়াই। সোমবার রাজকোটে রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে মুখোমুখি হতে চলেছে বাংলা ও সৌরাষ্ট্র দল। সেমি ফাইনালে ঘরের মাঠে কর্ণাটককে ১৭৪ রানে হারিয়ে ফাইনালে পৌছেছে কোচ অরুণ লালের বাংলা দল। অপরদিকে গুজরাটকে ৯২ রানে হারিয়ে ফাইনালে পৌছেছে সৌরাষ্ট্র। গত সাত বছরে তিন বার ফাইনালে উঠলেও, ট্রফি অধরা অধিনায়ক জয়দেব উনদকাটের দলের। কিন্তু এবার ট্রফি জিততে বদ্ধপরিকর সৌরাষ্ট্র দল। 

আরও পড়ুনঃ পঞ্চমবার মহিলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয় অজিদের, অধরা ভারতের স্বপ্ন

ঘরের মাঠে বাংলাকে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে নারাজ সৌরাষ্ট্র। ফাইনালে সৌরাষ্ট্রের হয়ে খেলবেন ভারতীয় টেস্ট দলের মিডল অর্ডারের স্তম্ভ চেতেশ্বর পুজারা। এছাড়াও ব্যাটিং অর্ডারে রয়েছে হারভিক দেশাই, কিশান পারমার, শেল্ডন জ্যাকসন, চিরাগ জানির মত নাম। বোলিং লাইনআপে বিধ্বংসী ফর্মে রয়েছেন দলের অধিনায়ক জয়দেব উনদকাট। চলতি রঞ্জি মরসুমে ৬৫টি উইকেট নিয়ে সর্বাধিক উইকেটের মালিকও উনদকাট। এছাড়াও সৌরাষ্ট্র বোলিং অ্যাটাকে রয়েছে চেতন সাকারিয়া, প্রেরক মানকন্দের মত নাম। ফলে ঘরের মাঠে সৌরাোষ্ট্র কিছুটা এগিয়ে থেকেই ফাইনাল শুরু করবে বলে মনে করছে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। 

আরও পড়ুনঃদক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের জন্য ভারতীয় দল ঘোষণা, ফিরলেন হার্দিক, শিখর ও ভুবি

আরও পড়ুনঃআইপিএল শুরুর আগেই ধাক্কা খেল দিল্লি, অদ্ভুত কারণ দেখিয়ে নাম তুললেন ওকস

অপরদিকে, চলতি মরসুমে ব্যাটিংয়ে কিছু সমস্যা থাকলেও, দুরন্ত ফর্মে রয়েছে বাংলা দলও। বিশেষ করে বাংলার পেস অ্যাটাক গোটা রঞ্জি মরসুমে ত্রাস সঞ্চার করেছে বিপক্ষের ব্যাটিং লাইনআপে। স্বপ্নের ফর্মে রয়েছে বাংলার পেস ত্রয়ী ঈশান পোড়েল, মুকেশ কুমার, আকাশ দীপরা। সেমি ফাইনালে কর্ণাটকের কে এল রাহুল, মণীশ পাণ্ডে, করুণ নায়ার, পাড্ডিকল সমৃদ্ধ ব্যাটিং লাইনআপকে দাঁড়াতে দেয়নি বেঙ্গল পেস ব্যাটারি। তবে  ফাইনালের লড়াই যে সেমির মত ততটা সহজ হবে না তা ভালই বুঝতে পারছেন বাংলার কোচ অরুণ লাল।  প্রতিপক্ষ রাজ্যের পছন্দের উইকেটে কার্যত লড়াই করতে হবে অনষ্টুপ, ঋদ্ধি, মনোজ, ঈশান, মুকেশদের। একইসঙ্গে বার বার বাংলার টপ অর্ডারের ব্যর্থতা চিন্তা বাড়িয়েছে বাংলা টিম ম্যানেজমেন্টের।  শেষ কবে ভালো রান করেছেন তা প্রায় ভুলেই গিয়েছেন অভিষেক, অভিমন্যুরা। মনোজ, অর্ণব,কৌশিক, শ্রীবৎসরাও নিয়মিত রানে নেই। ফলে প্রতি ম্যাচে দলের পরিত্রাতা হিসাবে ব্যাটিং অর্ডারের রাশ টানতে হচ্ছে অনুষ্টুপ,শাহবাজদেরই। যদিও ফাইনালে টপ অর্ডার রানে ফিরবে বলে আশাবাদী বেঙ্গল টিম মেনেজমেন্ট। যদিও ফাইনালে ভরসা জোগাচ্ছে ঋদ্ধির উপস্থিতিও। উইকেটের পেছনে ঋদ্ধির বিচক্ষণতা ও  ব্যাটিংয়ে ঋদ্ধির অভিজ্ঞতা দলের অনেক কাজে আসবে বলেই মনে করছেন বাংলার কোচ। ফলে দলে ব্যাটিং অর্ডারে রানে ফেরা, ঋদ্ধি, মনোজদের অভিজ্ঞতা ও ঈশান-মুকেশ-আকাশ দীপদের আগুনে বোলিংয়ের উপরই ভরসা করে রঞ্জি জয়ের ঘুঁটি সাজাচ্ছেন বাংলা থিঙ্ক ট্যাঙ্ক।