ইডেনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কটা সবসমই মধুর। টেস্ট ক্রিকেটে রোহিতের অভিষেক হয়েছিল ইডেনে। সেই ম্যাচেই শতরান করেছিলেন শর্মাজি। একদিনের ক্রিকেট ইতিহাসের ব্যাক্তিগত সর্বোচ্চ রান ২৬৪ হিটাম্যান করেছিলেন ক্রিকেটের নন্দন কাননেই। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের নেতা হিসেবে প্রথম আইপিএল ট্রফিটাও ইডেনেই জিতেছিলেন রোহিত। আর এবার দেশের প্রথম পিঙ্ক বল টেস্টের সঙ্গেও ইডেনেই নিজেকে জড়িয়ে ফললেন রোহিত। এবার ব্যাটে রান আসেনি। কিন্তু অসামান্য একটা ক্যাচ নিয়ে দর্শকদের মন জিতে নিয়েছেন রোহিত শর্মা। রবিবার ইডেনে ম্যাচে জেতার পর রোহিত বললেন এই টেস্ট জয় ঐতিহাসিক। 

 

 

আরও পড়ুন - কোন পথে হবে টেস্ট ক্রিকেটের উন্নতি, পরামর্শ দিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট

পিঙ্ক বল টেস্ট শেষ হওয়ার পর ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের জন্য একটি ভিডিও শ্যুট করছিলেন রোহতি। টিম ইন্ডিয়ার ওপেনার সেখানে ছিলেন সাংবাদিকের ভূমিকায়। টিম ইন্ডিয়ার দুই স্পিড স্টার ইশান্ত শর্মা ও উমেশ যাদবের ইন্টারভিউ নেওয়ার শুরুতেই ইডেন টেস্টকে ঐতিহাসিক বলে উল্লেখ ককরেন রোহতি। তারপরই সাংবাদিক রোহিতের প্রশ্ন ইশান্তকে। গোলাপি বল লাল বলের থেকে কতটা আলাদা? ইশান্তের জবাবা, ‘এই বলটা খুবই আলাদা। প্রথম দিনের প্রথম সেশনে বল সুইং করছিল না। তাই আমরা নিজেদের মধ্যে কথা বলে লেন্থ বল করার পরিকল্পনা করেছিলাম।’ উমেশ জানালেন নিজের রিস্ট পজিশন বলদেই তিনি সাফল্য পেয়েছেন। নিজেক কোচেদের সঙ্গে কথা বলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। 

আরও পড়ুন - পিঙ্ক বল টেস্টের সফল আয়োজন, রবি শাস্ত্রীও ধন্যবাদ জানালেন সৌরভকে

এরপর প্রশ্ন ধেয়ে এল রোহিতের দিকে। প্রথম দিন সেকেন্ড স্লিপে দাঁড়িয়ে রোহিতের সেই অসামান্য ক্যাচ নিয়ে প্রশ্ন করলেন ইশান্ত। রোহিত জানালেন, ‘আমি দেখলাম বলটা আমার ও বিরাটের মাঝামাঝি জায়গার দিকে আসছে। মনে হল বলটা আমাদের মাঝ দিয়ে গলে যেতে পারে। পরে রিপ্লেতে দেখেছিলেম বিরাটও ক্যাচের জন্য ঝাঁপিয়েছিল, কিন্তু তখন আমি কিছু না ভেবে ক্যাচ ধরার জন্য ঝাঁপিয়েছিলাম। কারণ যাব কি যাবনা ভাবলে সমস্যা হতে পারে। তাই ঝাঁপিয়ে পরি। আমি ভাগ্যবান যে বল আনার হাতে চলে আসে। 

আরও পড়ুন - পিঙ্ক বল টেস্ট নিয়ে বিরাটকে চ্যালেঞ্জ অজি অধিনায়কের, তৈরি কোহলিও