চলতি বছরের জুলাই মাসে ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমির দায়িত্ব নিয়েছিলেন প্রাক্তন জাতীয় অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়। আর অক্টোবর মাসে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের সভাপতির পদে দায়িত্ব নিয়েছেন প্রাক্তন জাতীয় অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। প্রায় তিন বছর পর ভারতীয় ক্রিকেটকে আবার সঠিক পদে ফেরানোর দায়িত্ব নিয়ে আসরে নেমেছেন মহারাজ। আর এই কাজে তাঁর সামনে যে সব চ্যালেঞ্জ রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমি। সভাপতির পদে বসেই সৌরভ দেখা করেছিলেন তাঁর প্রাক্তন সতীর্থের সঙ্গে। রাহুলের সঙ্গে দেখা করে এনসিএ’র অর্তমান অবস্থা সম্পর্কে খোঁজ খবর নেওয়ার পাশাপাশি আগামী দিনে এগিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনাও তৈর করেছেন সৌরভ রাহুলরা। ঢেলে সাজানো হবে ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমিকে। কারণ বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও এনসিএ প্রধান রাহুল দ্রাবিড় দুজনেরই মনে হয়েছে বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে এনসিএতে। 

আরও পড়ুন - আগামী দু’দিনের মধ্যেই তৈরি হবে ক্রিকেট অ্যাডভাইজারি কমিটি, জানালেন সৌরভ

বছরের শেষ পর্যায়ে এসে এই সমস্যা গুলি আরও বড় করে দেখা দিচ্ছে। সমস্যার শুরু ভারতীয় দলের ক্রিকেটারদের নিয়েই। শুক্রবারই খবর পাওয়া যায় জসপ্রীত বুমরার ফিটনেস টেস্ট নিতে রাজি হয়নি এনসিএ। কারণ বুমরা নিজের রিহ্যাবের সময় এনসিএতে আসেননি। বরং ইংল্যান্ডের চিকিত্সকের পরামর্শ নিয়ে নিজের মতই ট্রেনিং করেছে। ক্রিকেট মহলের মতে এতই চটেছে এনসিএ। তাই বুমরার ফিটনেস টেস্ট নিতে রাজি হয়নি তারা। পাশাপাশি গত সপ্তাহে ভুবনেশ্বর কুমারের স্পোর্টস হার্নিয়া সংক্রান্ত বিষয়েও কোনও আগ্রহ দেখায়নি এনসিএ। শোনা যাচ্ছে ভারতীয় দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে এনসিএ’র ইগোর লড়াই শুরু হয়েছে। তাই টিমন ইন্ডিয়ার ক্রিকেটাররাও দলের নেটে এসেই ফিটনেস টেস্ট দিচ্ছেন। কিছুদিন আগে ভারতীয় দলের সঙ্গে অনুশীলন করে নিজেকে ফিট প্রমাণ করেছেন জসপ্রীত বুমরা। এখন প্রশ্ন দেশের এক নম্বর ক্রিকেট অ্যাকাডেমি ও জাতীয়  দলের ক্রিকেটারের এই সমস্যা কেন ?

আরও পড়ুন - সান্টা ক্লজ বিরাট কোহলি, বাচ্চাদের মুখে ফোটালেন হাসি

এই ক্ষেত্রে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের যে দোষ দেওয়া যায় এমনটাও নয়। কারণ গত কয়েক বছরে ভারতীয় দলের একাধিক ক্রিকেটার ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমির অব্যবস্থার শিকার হয়েছেন। ঋদ্ধিমান সাহার চোটে কোথায় ধরতেই পারেনি এনসিএ। হার্দিক পাণ্ডিয়ার চোটের ক্ষেত্রেও ভুল তথ্য ধরা পরেছিল। একাধিক বার চোট পাওয়া বিজয় শঙ্করকে নিয়েও সঠিক কোনও পথ দেখাতে পারেনি এনসিএ। তাই সমস্যা যে এনসিএর অন্দরে আছে সেটা নিয়ে কোনও প্রশ্ন তোলার জায়গা নেই। এখন দেখার বোর্ড সভাপতি সৌরভ ও এনসিএ প্রধান রাহুল দ্রাবিড় কত তারাতারি এই সমস্যার সমাধন করে ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমিকে আবার বিশ্বাসযোগ্য করে তুলতে পারেন। 

আরও পড়ুন - ২০১৯ সালের এক নম্বর সেলেব বিরাট কোহলি, হারালেন সলমন-অক্ষয়দের