তিনি ভারতীয় ক্রিকেটর একজন সফল অধিনায়ক। ভারতীয় ক্রিকেট মহল মনে করে দেশের ক্রিকেট মানচিত্রটা বদলে দিয়েছেন মহারাজ। সৌরভ একজন সফল নেতা, কিন্তু সৌরভ ছিলেন অধিনায়ক ইমরানের ভক্ত। তবে এবার সেই ভক্তিতে এবার অনেকটা ছেদ পড়তে শুরু করেছে। ইমরান এখন ক্রিকেটের গন্ডি পেরিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। আর পাক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রতি পদক্ষেপেই হাসির খোরাক হয়ে চলেছেন ইমরান। থেকে থেকেই তলুছেন যুদ্ধের জিগির। রাষ্ট্র সংঘের জেনারেল অ্যাসেম্বলিতেও ইমরানের ভাষণে পরামানু যুদ্ধের কথা। 

আরও পড়ুন - আবার কোচের পদে ফিরতে পারেন অনিল কুম্বলে, জল্পনা তুঙ্গে ক্রিকেট মহলে

এই ভাষণ শুনেই খেপে আগুন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ইমারনকে তুলোধনা করে একটি টুইট করেছিলেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার বীরেন্দ্র শেহওয়াগ। সেই টুইটে নিজের মতামত দেন সৌরভ। মহারজ লেখেন, ‘বিরু আমি ভাষণটা শুনেছি, এবং আমি হতবাক। এই ভাষণ শোনাই উচিত নয়। পৃথিবীতে শান্তির প্রয়োজন, দেশে হিসেবে পাকিস্তানের সব থেকে বেশি শান্তির প্রয়োজন, আর সেই দেশের নেতা এই ধরনের জঘন্য কথা বলছেন। এই ইমরানকে ক্রিকেট বিশ্ব চেনে না। ইউএনে দেওয়া ইমরানেক ভাষণ খুবই খারাপ।’

আরও পড়ুন - বয়েস ভাঁড়ানো রুখতে এবার হেল্প লাইন নাম্বার চালু করল ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড

একটি আমেরিকান টিভি চ্যানেলকে দেওয়া ইমরানের সাক্ষ্যত্কারের অংশ তুলে শেহওয়াগ টুইট করেছিলেন নিজেকে ছোট করার জন্য একের পর এক উপায় তৈরি করেন এই মানুষটা। বুধবারই রাষ্ট্র সংঘে দেওয়া ইমারেনর ভাষণের কড়া নিন্দা করেছিলেন হরভজন সিং, মহম্মদ সামি, ইরফান পাঠানরা।  রাষ্ট্র সংঘের ভাষণে ভআরতের প্রধানমন্ত্রী যেখানে দেশের উন্ননয়ের নানান কথা তুলে ধরেন সেখানেব পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী প্রায় গোটা কাশ্মীর ও ভারতের বিরুদ্ধে পরামণু যুদ্ধের কথা বলে গেলেন। ইমরানের এমন কথা শুনেই ক্ষুব্ধ ক্রিকেট মহল। 

আরও পড়ুন - মিডল অর্ডার থেকে ওপেনারের ভূমিকায় সেরা পাঁচ সফল ব্যাটসম্যান