পশ্চিম মেদিনীপুরে দাঁতনে শুভেন্দু অধিকারীর রোড শো ও সভা, ডায়মন্ড হারবারে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা, একাধিক ইস্যুতে পথে বামেরা।  রবিবাসরীয় শীতের দুপুরে ক্রমশ চড়ছিল রাজনীতির পারদ। চলছিল একে-অপরকে আক্রমণ, পালটা আক্রমণ। সেই উত্তাপ আরও চড়াল রাজভবনে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের উপস্থিতি। বৈঠক করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে। যেই খবর প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে যায় রাজ্য রাজনীতিতে।

রবিবার দুপুরে হঠাৎই রাজভবনে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের উপস্থিতি ঘিরে তুমুল জল্পনা সৃষ্টি হয়। রাজভবনেপ প্রবেশের সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের কোনও উত্তরও দেননি প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে প্রায় ৩০ মিনিট ধরে বৈঠক করেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তবে ঠিক কি কারণে রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠক তার কারণ স্পষ্ট নয়। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়রে বৈঠক ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে রাজ্য রাজনীতিতে।

বেশ কিছু দিন ধরেই সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিজেপিতে যোগদান ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে। এমনকী সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হতে পারে বলেও বঙ্গ রাজনীতিতে জল্পনা রয়েছে। যদিও বিজেপিতে যোগদানের বিষয়ে এখনও কিছুই বলেননি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। রবিবার রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠক সৌজ্যমূলক সাক্ষাৎ বলেই জানা গিয়েছে। কিন্তু এদিন রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠক কি সৌরভের রাজনীতিতে প্রবেশের কোনও ইঙ্গিত, সেই প্রশ্নেই ঘুড়ছে বঙ্গ রাজনীতিতে।