বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার মেয়াদ আগেই শেষ হয়ে গিয়েছে।  বিসিসিআইয়ে নয়া সংবিধান অনুযায়ী  প্রশাসক হিসেবে ৬ বছরের বেশি কেই ভারতীয় ক্রিকেটের কোনও পদে থাকতে পারবে না। নিয়ম মেনে তাকে যেতে হবে তিন বছরের কুলিং অফে। তারপর পুনরায় ফিরতে পারবেন । সিএবি ও বিসিসিআই মিলিয়ে সৌরভের ৬ বছরের মেয়াদ কাল উত্তীর্ণ। কিন্তু বিসিসিআই চাইছে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হিসেবে ৬ বছর থাকুক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদনও করেছে বিসিসিআই। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও জানিয়ে দিয়েছেন আদালত না চাইলে পদ থেকে সরে য়াবেন তিনি। বিষয়টি আদালের বিচারাধীন থাকায় আর কদিন বোর্ডের মসনদে রয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় তা তার নিজেও অজানা।

আরও পড়ুনঃসমর্থকদের হাসির জন্য নিজেদের উজার করে দেবে কেকেআর, আরব থেক জানাল নাইটরা

কিন্তু মানুষটির নাম সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তার ভবিষ্যৎ অনিশ্চিৎ হলেও, বিসিসিআইয়ের কাজে কোনওভাবেই বাধা আসতে দেননি সৌরভ।  বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট তাই আগামী ১০-১২ মাসের ভারতীয় ক্রিকেটের ছবিটা অনেকটাই স্পষ্ট করে দিলেন। সমস্ত পরিকল্পনাও তৈরি সৌরভের। এমনকী আইপিএলর ১৩ তম মরসুম এখনও শুরু হয়নি, তারমধ্যেই আগামি বছর আইপিএলের ১৪ তম মরসুম নিয়েও কাজ শুরু করে দিয়েছেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট।  বিসিসিআইয়ের আগামি পরিকল্পনা সম্পর্কে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়ে দিলেন, আরব আমিরশাহিতে আইপিএল শেষ হওয়ার পরেই অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবে ভারতীয় দল। সেখানে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে নতুন বছরে দেশে ফিরবে টিম ইন্ডিয়া। তারপরই ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ। আর তারপরই এপ্রিলে শুরু হবে আইপিএল ১৪।

আরও পড়ুনঃএকের পর এক বিশাল ছক্কা হাকাচ্ছেন মাহি, মরুদেশে ধোনি ঝড়ের সতর্কবার্তা

আরও পড়ুনঃআইপিএল-এর ইতিহাসে সেরা ১০ ব্যাটসম্যান, যাদের ব্যাট বরাবর শাসন করে ২২ গজকে

ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে পরিকল্পনা তৈরি রয়েছে সৌরভের। কিন্তু করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে ঘরোয়া ক্রিকেট কবে থেকে শুরু করা যাবে তা নিয়ে নিশ্চিৎভাবে কিছুই বলতে পারেননি বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। তবে সমস্ত রাজ্য ক্রিকেট সংস্থাকে চিঠি দিয়েছেন সৌরভ। চিঠিতে সৌরভ লিখেছেন,'পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘরোয়া ক্রিকেট চালু করার জন্য সমস্ত রকম চেষ্টা করছে বোর্ড। ক্রিকেটারদের ও জড়িত সবার স্বাস্থ্য ও সুরক্ষার কথা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে বোর্ড। আমরা সমস্ত দিকে নজর রাখছি। ঘরোয়া ক্রিকেট শুরুর আগে সমস্ত কিছু জানানো হবে, সবার পরামর্শ নেওয়াও হবে।'তবে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির খুব শীঘ্রই উন্নতি হবে বলে আশাবাদী সৌরভ। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে, নিজের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিৎ জেনেও আগামি প্রায় এক বছরের বোর্ডের রুট ম্যাপ ঠিক করে রাখা সেটা কেবল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বলেই সম্ভব।