প্রথম ইনিংসে ৪১৬ রান করে নিউজিল্যান্ডকে পার্থে ব্যাটিং করতে পাঠিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। স্কোর বোর্ডে এক রান তুলতেই দুই ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে ফেলেছিল নিউজিল্যান্ড। দুই ওপেনার টম ল্যাথাম ও শূন্য রানে স্টার্ক ও রাভাল এক রানে হ্যাজেলউডের শিকার হয়েছেন। নিউজিল্যান্ড ইনিংসে এরপর  ভরসা দিতে নেমেছিলেন দলের দুই সিনিয়র, অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও রস টেলর। ৭৬ রান স্কোর বোর্ডে যোগ করেছিলেন দুজন। বোলিং করছিলেন স্টার্ক। ব্যাট হাতে তাঁর চ্যালেঞ্জ সামলাচ্ছিলেন উইলিয়ামসন। কিন্তু স্টার্কের বলে ব্যাটের ফেসটা হালকা করে খুলেছিলেন কেন। বল ব্যাটের কানায় লেগে থার্ড ম্যানের দিকে যাচ্ছিল। কিন্তু তখনই বাজ পাখীর মত উড়ে গিয়ে বলকে তালুবন্দি করলেন স্টিভ স্মিথ। মাঠে উপস্থিত দর্শক বা টিভি পর্দায় চোখ রাখা ক্রিকেট প্রেমী কেউই যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না এমন ভাবেও ক্যাচ নেওয়া যায়। 

 

 

আরও পড়ুন - অবসর ভেঙে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরলেন ব্রাভো, খেলতে চান বিশ্বকাপ

স্টিভ স্মিথের ক্যাচ দেখে সবার চোখই যেন কপালে উঠল। সেই ক্লিপ ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। স্টিভ স্মিথের সেই ক্যাচ দেখে নেট দুনিয়াও অবাক। তবে অস্ট্রেলিয়া দলে স্টিভের সতীর্থরা কিন্তু অবাক নন। তাঁদের প্রাক্তন অধিনায়াক এমন সব কাণ্ড করতে অভ্যস্ত। ট্রেভিস হেড বলছেন, তিনি মিড উইকেটে ফিল্ডিং করছিলেন, সব থেকে ভালও ভাবে ক্যাচটা দেখার সুযোগ পেয়েছেন। পাশাপাশি এই অসামান্য ক্যাচে আউট করা গিয়েছে কেইন উইলিয়ামসনকে। ম্যাচটাও যে অনেক হাতের মুঠোয় চলে এসেছে। 


 

 

আরও পড়ুন - কলকাতায় ৩৩২ ক্রিকেটারের ভাগ্য পরীক্ষা, আইপিএল নিলামের নির্ঘন্ট প্রকাশ করল বোর্ড

সত্যই এই ক্যাচটা বড় ধাক্কা দিয়ে গেছে কিউই শিবিরের কাছে। কারণ যে পার্টনারশিপে ভর করে নিউজিল্যান্ড ঘুড়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছিল সেটা যে আর বড় পার্টনারশিপে পরিণত হল না। উইলিয়ামসন ফিরে যেতেই আরও দুটি উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় দিনের শেষে ৩২ ওভার ব্যাটিং করে ১০৯ রান বোর্ডে তুলেছে কিউইরা। কিন্তু পাঁচ উইকেট হারিয়েছে তারা। ক্রিজে আছেন রস টেলর। ৬৬ রানে অপরাজিত তিনি। তৃতীয় দিনের শুরুতে আরও দুটি উইকেট তুলে নিতে পারলে প্রথম টেস্ট জয়ের পথে অনেকটাই এগিয়ে যাবে অজিরা। সেটাই এখন লক্ষ্য তাদের। 

আরও পড়ুন - আজাদ ময়দানের অন্ধকার তাঁবু থেকে ভারতীয় দল, যশস্বী এখন অনুপ্রেরণার আরেক নাম