পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে ৩ উইকেটে জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড দল। রুদ্ধশ্বাস টেস্ট ম্যাচের সাক্ষী থেকেছে গোটা ক্রিকেট বিশ্ব। ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গিয়েছে ব্রিটিশ লায়ন্সরা। যদিও ইংল্যান্ডের জয়ে কাঁটা হয়ে থেকে গিয়েছে স্টুয়ার্ট ব্রর্ডের শাস্তি। ম্যাচে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করার অপরাধে শাস্তির মুখে পড়তে হয় ইংল্য়ান্ড পেস বোলিং অ্যাটাকের অন্যতম সেরা অস্ত্রকে। আর স্টুয়ার্ট ব্রডকে এই শাস্তি দিয়েছেন খোদ তার বাবা ক্রিস ব্রড।

আরও পড়ুনঃক্যান্সারকে জয় করে মাঠে ফিরেছিলেন তিনি, এবার সঞ্জয় দত্তের পাশে দাঁড়ালেন যুবরাজ

ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসের ৪৬ তম ওভারের খেলা চলাকালীন এই ঘটনা ঘটান স্টুয়ার্ট ব্রড। পাকিস্তানের ব্যাটসম্যান ইয়াসির শাহ আউট হন ব্রর্ডের বলে। ইয়াসিরকে আউট করার পরই অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করেন স্টুয়ার্ট ব্রড। এরপরই বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন ইংল্যান্ড তারকা পেসার। এই ম্যাচ রেফারি ছিলেন তাঁরই বাবা ক্রিস ব্রড৷ আর জেন্টলম্যান গেমের নিয়ম ভাঙা ছেলে স্টুয়ার্ট ব্রডকে শাস্তিও দিলেন তার বাবা। আইসিসি-র বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ি ব্রড আইসিসি আচরণ বিধি ধারার ২.৫ নিয়ম ভঙ্গ করেছিলেন৷ তাই সেই দোষে তিনি দোষী প্রমাণিত হন ৷ এই ধারায় মাঠের মধ্যে অশ্লীল ভাষা-অঙ্গভঙ্গি বিধিভঙ্গের মধ্যে পড়ে৷ শাস্তি হিসেবে তার ম্যাচ ফি'র ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়।

আরও পড়ুনঃমরুদেশের আইপিএল যুব প্রতিভাদের কাছে আশির্বাদ, দলের সঙ্গে তারা যাচ্ছেন নেট বোলার হয়ে

আরও পড়ুনঃফ্র্যাঞ্চাইজির নিষেধাজ্ঞা,তারপরও পরিবারকে সঙ্গে রাখার অভিনব ব্যবস্থা করলেন রায়না

এর আগেও স্টুয়ার্ট ব্রড একাধিকবার বিধিভঙ্গের আওতায় পড়েছেন৷ এবার ফের একবার তাঁর ক্রিকেট কেরিয়ারে নামের পাশে কালির দাগ পড়ল৷ গত ২৪ মাসে এই নিয়ে তিনবার বিধিভঙ্গ করলেন তিনি৷ পাশাপাশি তাঁর থেকে ৩ পয়েন্টও কেটে নেওয়া হয়৷  সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট কেরিয়ারে ৫০০ উইকেট নেওয়ার মাইলস্টোন স্পর্শ করেন স্টুয়ার্ট ব্রড। দীর্ঘ সময় পর ২২ গজে ফিরে নিজেকে প্রমাণ করেছিলেন তিনি। কিন্তু পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্রডের এহেন আচরন নিয়ে সমালোচনায় সরব ক্রিকেট বিশ্ব।