স্বাধীনতা দিবসের সন্ধায় তার প্রিয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং দোনির পথ অনুসরন করেছিলেন তিনি। ধোনির সঙ্গে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করেছিলেন সুরেশ রায়না। ধোনির মতই রায়নাকেও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রদানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বর্তমানে আইপিএল আঙিনাতে রয়েছেন রায়না। আবুধাবিতে তার দল চেন্নাই সুপার কিংসের সঙ্গে যোগ রয়েছেন। এবার আইপিএলের পরও নিজের কেরিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংসও ঠিক করে ফেলেছেন প্রাক্তন ভারতীয় বাঁ হাতি ব্যাটসম্যান। কোচের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে চান সুরেশ রায়না।

আরও পড়ুনঃকেকেআরে খেলবেন কি মেসি, ভাইরাল ফটো ঘিরে তোলপার নেট দুনিয়া

আইপিলের পর জীবনের দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় ক্রিকেটের উন্নতির জন্য কিছু করতে চান রায়না। কোচ হিসেবেও কঠিন চ্যালেঞ্জেরই সম্মুখীন হওয়ার ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন সুরেষ রায়না। জম্মু ও কাশ্মীরের ক্রিকেটের উন্নতিতে কাজ করতে চান তিনি। কারণ দেশের অন্যান্য প্রান্তের তুলনায় জম্মু-কাশ্মীরের ক্রিকেটে উন্নতি অনেকটাই কম। গুলির আওয়াজে যাদের ঘুম ভাঙে সেখান থেকেই ব্যাট-বলের মিষ্টি শব্দের হদিস দিতে চান রায়না। সেই কঠিন চ্যালেঞ্জই নিতে চান তিনি। জম্মু ও কাশ্মীরের ডিজিপি দিলবাগ সিংকে ইতিমধ্যেই লিখিতভাবে নিজের ইচ্ছের কথা জানিয়েছেন।

আরও পড়ুনঃবউদি কি ওপেন করবে, রোহিত-রিতিকার ওয়ার্ক আউটের ভিডিওতে মন্তব্য চাহলের, পালটা কি বললেন হিটম্যান 

আরও পড়ুনঃবায়ো সিকিওর বাবল নিয়ে কেকেআরের মজাদার পোস্ট, যা ঝড় তুলেছে নেট দুনিয়ায়

রায়ানর লেখা চিঠিতে নিজের পরিকল্পনার কথাও জম্মু-কাশ্মীরের ডিজিকে জানিয়েছেন সুরেশ রায়না। প্রত্যন্ত এলাকা থেকে প্রতিভা খুঁজে এনে তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে উচ্চমানের ক্রিকেটার তৈরি করা ও জম্মু-কাশ্মীরের নাম উজ্জ্বল করাই তার লক্ষ্য বলে চিঠিতে জানিয়েছেন রায়না। এবং কীভাবে প্লেয়ার তৈরি করবেন তার জন্য পাঁচটি পদ্ধতির কথাও বলেছেন দেশের হয়ে তিনটি ফর্ম্যাটে সেঞ্চুরি করা ক্রিকেটার। যদিও জম্মু-কাশ্মীরের প্রশাসনের তরফ থেকে রায়নাকে পাকাপাকিভাবে কিছুই জানানো হয়নি। আইপিএলের পর দেশে ফিরেই নির্ধারিত হব সবকিছু।