অধিনায়কত্বের চাপ যে তার ব্যাটিংয়ে কোনও প্রবাব ফেলেনি তা বারবার প্রমাণ করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। বিরাট কোহলি এক যুগ অতিক্রম করে ফেলেছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে। মাঝে দু-একটি বাজে ম্যাচ ছাড়া বিরাটের ব্যাটিং অভিধানে অফ ফর্ম কাকে বলে তা হয়তো লেখা নেই। একের পর একর ম্যাচ উইনিং ইনিংস খেলেছেন বিরাট। তার নামের সঙ্গে জুড়ে গিয়ছে দ্য রান মেশিন তকমাটাও। কিন্তু বিরাট কোহলির ১২ বছরের কেরিয়ারে সেরা ইনিংস কোনটা? সেটা বাছতে গেলে হয়তো সমস্যায় পড়বেন অনেকেই। কিন্তু প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার গৌতম গম্ভীর তার দেখা বিরাট কোহলির সেরা ইনিংস কোনটি ,তা জানিয়ে দিলেন।

আরও পড়ুনঃএকের পর এক বিশাল ছক্কা হাঁকাচ্ছেন শিখর ধওয়ান, আইপিএলের প্রস্তুতিতে গব্বর

বিরাট কোহলির সেরা ইনিংস বাছতে আট বছর পিছিয়ে যেতে হয় গৌতিকে। ২০১২ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে করা বিরাট কোহলি ম্যাচ উইনিং ১৮৩ রানের ইনিংসকেই বিরাটের কেরিয়ারের সেরা ইনিমস বাছলেন গৌতম গম্ভীর। সেই ম্যাচে পাকিস্তানের দেওয়া ৩৩০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অনবদ্য ইনিংস খেলেছিলেন বর্তমান ভারত অধিনায়ক। আসলে সেদিন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ৩৩০ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরুতেই গৌতম গম্ভীর শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফিরেছিলেন। সেখান থেকেই ম্যাচ বের করে টিম ইন্ডিয়া। সচিন তেন্ডুলকর ৫২ এবং রোহিত শর্মা ৬৮ রান করেছিলেন। ১৪৮ বলে ১৮৩ রান করেছিলেন বিরাট। ২২ টি চার এবং একটি ছক্কা ছিল কোহলির ইনিংসে। ১৩ বল বাকি থাকতে ভারত সেই ম্যাচ জিতে নেয়।

আরও পড়ুনঃধোনির সেরা সময় অতীত,নতুনদের জায়গা ছেড়ে দেওয়াই সঠিক সিদ্ধান্ত,মন্তব্য প্রাক্তন বিশ্বকাপ জয়ীর

আরও পড়ুনঃচিনে নিন আইপিএলের আসল বিনোদনকারীদের, প্রতিবছর যারা জমিয়ে রাখে গোটা টুর্নামেন্ট

কেনও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে করা ১৮৩ রানের ইনিংসকেই সেরা বাছলেন, সেই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে গম্ভীর বলেছেন,যে প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে বিরাট কোহলি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ইনিংস খেলেছিল তার গুরুত্ব ছিল সবচেয়ে বেশি। কারণ শুরুতেই উইকেট পড়ে যাওয়ায় তাপে ছিল ভারতীয় দল। তারউপর ৩৩০ রানের বিশাল টার্গেট। কোনও এক ব্যাটসম্যাকে উইকেট বাঁচানোর পাশাপাশি দ্রুত রানও করতে হত। একইসঙ্গে খেলতে হত বড় ইনিংস। ওই ম্যাচে সেই কাজটাই করে দেখিয়েছিলেন বিরাট কোহলি।