মুম্বইবাসীর অনিচ্ছা, রাজনৈতিক চাপানউতোর ও আসন্ন বর্ষার কারণে অবশেষে বাতিল হয়ে গেল ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বানানোর সিদ্ধান্ত। সোমবার সেই কথা জানিয়ে দিল  বৃহন্মুম্বই মিউনসিপ্যাল কর্পোরেশন।  কয়েক দিন আগে মহারাষ্ট্রের করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য  মহারাষ্ট্র ক্রিকেট সংস্থাকে চিঠি দিয়ে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের জন্য ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন। এমসিএ-কে চিঠি দিয়ে মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের নির্দেশ দেয়,'ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পরিণত করার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। তাই অনুরোধ করা হচ্ছে, ওয়াংখেড়ের ক্যাম্পাসে যে সমস্ত হোটেল, লজ, ক্লাব, এগজ়িবিশন সেন্টার, ক্লাব, ডর্মিটরি ইত্যাদি রয়েছে, তা তুলে দেওয়া হোক রাজ্য সরকারের হাতে।'রাজ্যসরকারের সঙ্গে সর্বোতভাবে সাহায্যের আশ্বাস দেয় এমসিএ। 

আরও পড়ুনঃদর্শক নয় স্টেডিয়াম ভর্তি সেক্স ডলে, এমন পরিবেশে ম্যাচ খেললেন ফুটবলাররা

আরও পড়ুনঃএলএমটেন বা সিআরসেভেন নয়, রবার্তো কার্লোসের বিচারে সেরা ব্রাজিলের রোনাল্ডো

দক্ষিণ মুম্বইয়ের অভিজাত এই স্টেডিয়ামকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বানানোর পরিকল্পনা শুনে শিবসেনার রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় রাউত বিএমসি’র সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান। একইসঙ্গে রাউত টুইটারে লেখেন, ‘ব্র্যাবোর্ন স্টেডিয়ামকেও কেন নেওয়া হচ্ছে না?’ রাজ্যসভার সাংসদের এই টুইট দেখে আসরে নামেন মহারাষ্ট্রের পরিবেশ মন্ত্রী অর্থাৎ উদ্ধব ঠাকরের ছেলে আদিত্য ঠাকরে। সঞ্জয় রাউতের টুইটের প্রত্যুত্তরে তিনি বলেন খুব শীঘ্রই মুম্বইয়ে বর্ষা নামতে চলেছে। আর বর্ষার মধ্যে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম ব্যবহার করা কার্যত অসম্ভব হয়ে পড়বে। রাজ্যের পরিবেশ মন্ত্রী টুইটারে লেখেন, ‘সঞ্জয় জি আমরা স্টেডিয়াম সংলগ্ন মাঠকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার তৈরির কথা চিন্তা করে গ্রহণ করতে পারব না। কারণ এইসব মাঠগুলো কর্দমাক্ত। বর্ষার মধ্যে এগুলি ব্যবহারের মতো অবস্থায় থাকবে না। তাই কংক্রিটের কোনও ফাঁকা জায়গাই এক্ষেত্রে সবচেয়ে উপযুক্ত।’ একইসঙ্গে এমন জায়গা তাঁদের হাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে বলে ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামকে গ্রহণের পরিকল্পনা থেকে সরে আসেন রাজ্যের ক্যাবিনেট মন্ত্রী। একইসঙ্গে ওয়াংখেড়েকে কোয়াকেন্টাইন সেন্টার বানানোর ক্ষেত্রে আপত্তি জানায় মুম্বইয়ের স্থানীয় বাসিন্দারা। অবশেষে আদিত্য ঠাকরের টুইটের পরই রবিবার মুম্বই মিউনসিপ্যাল কমিশনার ইকবাল সিং চাহাল জানিয়ে দেন বৃহন্মুম্বই মিউনসিপ্যাল কর্পোরেশন ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম কিংবা স্টেডিয়ামের কোনও ফাঁকা স্থান কোয়ারেন্টাইন সেন্টার তৈরির কাজে গ্রহণ করছে না। পরিবর্তে জানানো হয়েছে সিভিক বডি শহরের একাধিক মাল্টি স্টোরেড পার্কিং এরিয়াকে কোভিড১৯ চিকিৎসা কেন্দ্র কিংবা কোয়ারেন্টাইন সেন্টার হিসেবে গ্রহণের পরিকল্পনা করছে। ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বানানোর সিদ্ধান্ত বাতিল হওয়ায় খুশি বৃহন্মুম্বই মিউনসিপ্যাল কর্পোরেশনের স্থানীয় বাসিন্দারা।

আরও পড়ুনঃরবি শাস্ত্রী নয়, ইশান্ত শর্মার নজরে সেরা কোচ রিকি পন্টিং