করোনা আতঙ্কের মধ্যেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ফিরেছে ফুটবল। জার্মানিতে শুরু হয়েছে বুন্দেশলিগা। ফুটবল ফেরানোর তোর জোর তলছে স্পেন, ইতালি, ইংল্যান্ডে। পিছিয়ে নেই এশিয়া মহাদেশও। এশিয়াতেও একাধিক দেশে শুরু হয়েছে ফুটবল। তাদের মধ্যে অন্যতম দক্ষিণ কোরিয়া। করোনার জেরে সে দেশেও অনেকদিন বন্ধ ছিল ফুটবল। গত ৮ মে থেকে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে শুরু হয় কে-লিগ। নিয়ম মেনে ফাঁকা গ্যালারিতেই শুরু হয়েছে লিগ। প্লেয়ারদের উৎসাহ দিতে অনেক ম্যাচেই বসানো হয়েছে মাস্ক পড়া দর্শকদের কাট আউট, ছবি বা অন্য কিছু। কিন্তু মাঠ ভরাতে গ্যালারি সাজানো হয়েছে সেক্স ডল বা যৌন পুতুল দিয়ে। এমন ঘটনা শুনেছেন কী। এমনাই ঘটেছে দক্ষিণ কোরিয়ার সিওলে।

আরও পড়ুনঃএলএমটেন বা সিআরসেভেন নয়, রবার্তো কার্লোসের বিচারে সেরা ব্রাজিলের রোনাল্ডো

এফসি সিওল বনাম গুয়ানজু এসির ম্যাচে ক্লাব কর্তৃপক্ষ ঠিক করেছিল প্লেয়ারদের মানসিক শান্তি দিতে কৃত্রিম উপায়ে ভরিয়ে তোলা হবে গ্যালারি। এক্ষেত্রে সাধারণত ম্যানিকুইন কিংবা দর্শকদের ছবি দেওয়া কাটআউট ব্যবহার হয়ে থাকে। কিন্তু সিওল বিশ্বকাপ স্টেডিয়াম সাক্ষী রইল একেবারে অন্য দৃশ্যে। ম্যাচে গ্যালারিজুড়ে  বসানো হয়েছে সেক্স ডল বা যৌন পুতুল! এক-একটি পুতুলের গায়ে এক-এক ধরনের জার্সি-টি-শার্ট। বিভিন্ন ধরনের অঙ্গভঙ্গি করে রয়েছে পুতুলগুলি। ফুটবলারদের উৎসাহ দেওয়ার ভঙ্গিতেই বসে তারা। ঐতিহাসিক সিওল বিশ্বকাপ স্টেডিয়ামে অমন দৃশ্য দেখে স্বভাবতই বিতর্কের ঝড় ওঠে। এফসি সিওল ম্যাচ জিতলেও, খেলার মাঠে এইরকম আয়োজন দেখে হতবাক ফুটবল বিশ্ব। মুহূর্তের মধ্যে বাইরাল হয়ে যায় সেই গ্যালারি ভর্তি যৌন পুতুলদের ছবি। সমালোচনা করা হয় বিভিন্ন মহল থেকে।

আরও পড়ুনঃরবি শাস্ত্রী নয়, ইশান্ত শর্মার নজরে সেরা কোচ রিকি পন্টিং

আরও পড়ুনঃকাশ্মীর ভারতের ছিল,আছে ও থাকবে,আফ্রিদিকে জবাব শিখর ধওয়ানের,মুখ খুললেন যুবরাজও

এফসি সিওলের দাবি, ফুটবলারদের উৎসাহ দিতেই তারা ম্যানিকুইনের ব্যবহার করেছিল। সেগুলি সেক্স ডল নয়। এমনকী তারা এও জানায়, যে কোম্পানির থেকে ম্যানিকুইনগুলি আনা হয়েছিল, তারা সেক্স ডল তৈরি করে না। কিন্তু সেই কোম্পানি আবার বলে, গ্যালারিতে সজ্জিত সমস্ত পুতুল তাদের কোম্পানির নয়। আর এতেই অভিযোগ জোড়াল হয়। তাছাড়া গোটা স্টেডিয়ামে কেন শুধুই মহিলা পুতুল, সে প্রশ্নও তুলেছেন অনেকে। পরে পরে পরিস্থিতি বেগতিক দেখে ক্ষমা চেয়ে নেয় ক্লাব কর্তৃপক্ষ। কিন্তু কীভাবে এমন ঘটনা ঘটল তা নিয়ে প্রশ্ন চিহ্ন থেকেই যাচ্ছে।