বিশাখাপত্তনমে ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ। প্রথম ম্যাচে জয়ের পর সিরিজে ফ্রন্টফুটে ক্যারিবিয়ানরা। দ্বিতীয় ম্যাচেও টস জিতে নিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনয়াক পোলার্ড। টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি। দলে ইভেন লুইজ, চোট কাটিয়ে ফিরে এসেছেন।  ভারতীয় দলেও একটি পরিবর্তন করা হয়েছে। শিবম দুবে কে বসিয়ে পেসার শার্দুল ঠাকুরকে প্রথম দলে নিয়ে এসেছেন বিরাট। কিন্তু অধিকাংশ ক্রিকেট পন্ডিত দ্বিতীয় ম্যাচে একসঙ্গে কুলদীপ ও চাহালকে মাঠে দেখতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সেদিকে হাঁটেননি বিরাট রবি শাস্ত্রীরা।  

 

 

আরও পড়ুন - স্লো ওভার রেট, ম্যাচ ফি’র ৮০ শতাংশ জরিমান দিতে হচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে

তিন মাস পর একদিনের ক্রিকেট খলতে নেমে প্রথম ম্যাচে হারের মুখ দেখতে হয়েছে ভারতকে। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেটা বিরাটদের কাছে ডু অর ডাই। আরও একটা হার মানে সিরিজ খোয়াতে হবে। পাশাপাশি ঘরের মাঠে পরপর দুটি এদিনের সিরিজে হারের মুখ দেখতে হবে ভারতকে। বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে শেষ একদিনের সিরিজ খেলেছিল ভারত। পাঁচ ম্যাচের সেই সিরিজে প্রথম দুটি ম্যাচ জেতার পর টানা তিনটি ম্যাচত হারতে হয়েছে ভারত। তাই বুধবার হারলে ঘরের মাঠে টানা পাঁচটি একদিনের ম্যাচে হারের মুখ দেখতে হবে ভারতকে। তাই বিরাটের দল কিছুটা হলেও চাপে। কিন্তু অতীত বলছে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেলে বিরাটের টিম ইন্ডিয়ার ভয়ঙ্কর। 

আরও পড়ুন - বিরাট কোহলি ক্রিকেটের ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, বলছেন ব্রায়ান লারা

টি-২০ সিরিজের মত এই সিরিজেও টিম ইন্ডিয়ার মাথা ব্যথা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যানদের যে কোনও সময় বড় ছয় মারার ক্ষমতা। পঞ্চম বোলারের সমস্যা প্রথম ম্যাচে কিছুটা হলেও ধাক্কা দিয়েছে কোহলির দলকে। বিশাখাপত্তনমের উইকেট সবসময়ই ব্যাটিং সহায়ক। উইকেটের ট্র্যাক রেকর্ড বলছে রান তাড়া করা তুলনায় সহজ এই মাঠে।  বিরাটের রেকর্ডও দুরন্ত এই মাঠে। কিন্তু রান তাড়া করার সুযোগটা পাচ্ছেন না বিরাট। বরং প্রথমে ব্যাটিং করতে হচ্ছে রোহিতদের। গৌতম গম্ভীরের মত প্রাক্তন বোলারদের মতে প্রথমে ব্যাট করে অনন্তন ৩৫০ রান করতে হবে হেটমায়ারদের ওপর চাপ তৈরি করতে। 

আরও পড়ুন - খোঁজ পাওয়া গেল ভক্তের, সচিনের সঙ্গে দেখা করনোর উদ্যোগ হোটেল কতৃপক্ষের