ইরফান খানের মৃত্যু নিয়ে এবার টুইট করলেন প্রধানমন্ত্রী। বিশ্বখ্য়াত অভিনেতাকে নিয়ে মোদী বলেছেন,ইরফানের মৃত্যুতে বিশ্ব সিনেমা ও থিয়েটার জগতের ক্ষতি হয়ে গেল। তিনি তাঁর বৈচিত্রপূর্ণ পারফর্মমেন্সের মাধ্য়মে চিরদিন স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করি।   

— Narendra Modi (@narendramodi) April 29, 2020  

মায়ের মৃত্যুর পর হঠাৎ করেই অভিনেতার অবস্থার অবনতি হয়। গত সোমবারই মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি  হাসপাতালে ভর্তি করতে হয় ইরফানকে। আইসিইউতে রাখতে হয় তাঁকে। ব্রেনে টিউমার নিয়ে বেশ কয়েক বছর ধরে লড়াই করছেন তিনি। সুস্থ হয়ে 'আংরেজি মিডিয়াম' ছবির মধ্যে দিয়ে কামব্যাকও করেছিলেন ইরফান। কিন্তু আবারও অসুস্থ হয়ে  ভর্তি হলেন ইনফেকশন নিয়ে। বুধবার  সকালে হাসপাতালেই তাঁর মৃত্যু হয়।

মায়ের শেষ ইচ্ছে পূরণ হল না, তার আগেই চলেগেলেন ইরফান.

২০১৮ সালে বিরল রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন ইরফান। কঠিন রোগ নিউরো এন্ডোক্রিন ক্যানসারের দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসা চলছিল লন্ডনে। মঙ্গলবার তিনি হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরই উদ্বেগ তৈরি হয়। জানা যায়, কোলন ইনফেকশন নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। ভারতের অন্যতম সেরা অভিনেতার হাসপাতালে ভর্তির খবর ছড়িয়ে পড়তেই বলিউড থেকে শুরু করে তার ভক্তকূল সকলেই সুস্থতা কামনা করতে থাকেন। তবে সবাইকে নিরাশ করেই বুধবার নিজের দীর্ঘ লড়াই শেষ করলেন অভিনেতা। 

"বড্ড তাড়াতাড়ি চলে গেলে ইরফান", অভিনেতার মৃত্যুতে ভেঙে পড়লেন বিগ বি.

এভাবে তিনি ছেড়ে চলে যাবেন কেউ হয়তো তা কল্পনাও করেনিন। বাঙালি স্ত্রী সুতপা সিকদার ও দুই সন্তান বাবিল ওআয়ানকে রেখে গেলেন অভিনেতা। দু'দিন আগে মাকে হারিয়েছিলেন অভিনেতা। অসুস্থতা আর লকডাউনের কারণে শেষদেখা হয়নি দু'জনের। অসুস্থ শরীরে মায়ের মৃত্যুশোক কোথাও হয়তো মেনে নিতে পারেননি অভিনেতা। তাই সইদা বেগমের মৃত্যুর ২ দিনের মধ্যেই হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় ইরফানকে।  এবার মায়ের কোলে মাথা রেখে নিশ্চিন্তে চিরশান্তির ঘুম ঘুমোবেন অভিনেতা।