এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো ছবির জেরে বিপাকে যুবতী। রাণু মণ্ডলের সঙ্গে ছবি পোস্ট করে দিনরাত গালিগালাজ খাচ্ছেন আসানসোলের রেডিয়ো জকি। 

ঘটনার সূত্রপাত একটি সাক্ষাৎকারকে ঘিরে। রাণু মণ্ডলের সাক্ষাৎকার নিয়ে ফেসবুকে সেই ভিডিও পোস্ট করেছিলেন সোনিয়া। রাণুদিকে জড়িয়ে ধরে ছবিও তুলেছিলেন। পরে সেই ছবি পোস্ট করেন ফেসবুকে। প্রথমে কিছু না হলেও দিন কাটাতেই এই ছবি ঘিরেই নেটিজেনদের মধ্যে শুরু হয় বিভ্রান্তি। কারণ এরই মধ্যে অনেকে সোনিয়াকে রাণুর মেয়ে বলে পোস্ট শুরু করেন এফবিতে।  যাকে কেন্দ্র করে সোনিয়াকে ট্রোল করতে শুরু করে নেটিজেনদের একাংশ। পরে তা আর ট্রোলে সীমাবদ্ধ না থেকে শুরু হয় অকথ্য় গালিগালাজ।

আরও পড়ুন : ভাগ্যের শিঁকে ছিড়ে রাণু এখন স্টার, প্রাপ্তির ঝুলিতে সেরা ১০, যা রাণু স্বপ্নেও ভাবেননি

আরও পড়ুন ; রাণুর নকল করে বিতর্কে অভিনেতা, থানায় অভিযোগ হতেই চাইলেন ক্ষমা

বেশিরভাগ লোকই বলতে থাকেন, এতদিন মাকে ছেড়ে পালিয়েছিলেন,এখন বৈভব দেখেই তাঁর কাছে ফিরে এসেছেন ? যার উত্তরে আসানসোলের ওই যুবতী বলেন, 'রাণু মণ্ডলের মেয়ে হতে পারলে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করতেন। কিন্তু তিনি তাঁর মেয়ে নন। তাঁর মেয়ে অন্য কেউ।' তা সত্ত্বেও থামেনি গালিগালাজ। রাণুর প্রসঙ্গে সোনিয়া বলেন, রাণু মণ্ডল তাঁর প্রতিভার জন্য বিখ্যাত হয়েছেন। বলিউডে সুযোগ পাচ্ছেন। এখানে অযথা তাঁর পরিবারকেও টেনে আনা উচিত নয়। কিন্তু কে শোনে কার কথা। রাণুর গানের মতই ফেক পোস্টও ভাইরাল হতে শুরু হয়েছে ফেসবুক জুড়ে।

ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ার ভুয়ো পোস্ট ধরতে সক্রিয় হয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তাসত্ত্বেও ফেক ছবি দিয়ে এই ধরনের ঘটনা ঘটেই চলেছে। ফেসবুকের দৌলতে যেমন প্রতিভার সঠিক মূল্যায়ন হচ্ছে , তেমনই সত্যমিথ্যা যাচাই না করেই ফেক পোস্ট ভাইরালে ক্ষতিও হয়ে যাচ্ছে অনেকের। এই ধরনের প্রবণতা আটকাতে সোনিয়া লাইভ ভিডিও প্রকাশ করে সতর্ক করেছেন নেটিজেনদের। তিনি বলেন,রাণুদির সঙ্গে তাঁর ছবিকে মেয়ে বলে যে পোস্টারিং করা হচ্ছে তা ভুল। সামান্য দায়িত্ব না নিয়েই যেভাবে ফেক ছবি বা ভিডিও শেয়ার করা হচ্ছে তার ফল মারাত্মক হতে পারে । আমার পোশাক নিয়েও ট্রোলড করা হচ্ছে। বলা হচ্ছে, দেখে তো মনে হচ্ছে ভালো ঘরেই রাণুদি বিয়ে দিয়েছিল। তা হলে মাকে স্টেশনে ফেলে পালিয়ে গিয়েছিলেন কেন। মাকে ভিক্ষে করতে হচ্ছে কেন?