বিধানসভা নির্বাচন যতোই এগিয়ে আসছে, ততোই তির্যক রাজনৈতিক মন্তব্য়ে উত্তপ্ত হচ্ছে বঙ্গ রাজ্য-রাজনীতি। বিশেষ করে তৃণমূল বনাম বিজেপির বাকযুদ্ধের পারদ ক্রমশই চড়ছে। এই বাকযুদ্ধে নয়া বিতর্ক তৈরি করলেন দিলীপ ঘোষ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্য তিনি এমন এক আপত্তিকর মন্তব্য করেন, যাতে কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী এই মন্তব্য বিতর্কে দিলীপ ঘোষকে কাঠগড়ায় তুলেছেন। সেই সঙ্গে দিয়েছেন কড়া হুঁশিয়ারি।  

 

আরও পড়ুন, 'সব বেঁচে দে' বলে তৃণমূলের জার্সি, জবাবে দিলীপ বললেন 'মে মাসে হবে নিলাম' 


 'বেশি বাড়াবাড়ি না করার' হুঁশিয়ারি

সম্প্রতি একটি সভাতে বক্তৃতা দেওয়ার সময় রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করেন দিলীপ ঘোষ। সেই সময় বরাবরেই মতোই একহাত নেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়কেও। বলত বলতে অশালীন ভাষায় কথা বলেন দিলীপ। এর পরে হুঁশিয়ারিও দেন 'বেশি বাড়াবাড়ি না করার' জন্য বিজেপির রাজ্য সভাপতি। কিন্তু সময় পেরোলেও মুখ্যমন্ত্রী এহেন অশালীন মন্তব্য় এবং গালিগালাজ করায় বিতর্কের ঝড় ওঠে রাজনৈতিক মহলে। আর এবার দিলীপ ঘোষকেই একহাত নিলেন যাদবপুরের তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। বিজেপির রাজ্য সভাপতি কী শালীনতার সীমা ছাড়ানোর অভ্যায় করেছেন, প্রশ্ন তোলেন মিমি।

আরও পড়ুন, ঘুরে আসুন ঘাটশিলা, রইল কলকাতার থেকে একটু দূরে সেরা ৫ নতুন ভ্রমণের ঠিকানা 

 

 'ছি' বলে তিরষ্কার মিমির

 মিমি চক্রবর্তী মনে করিয়ে আরও বলেন, দেশের একমাত্র মহিলা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। 'তাঁকে প্রকাশ্য়ে গালাগালি' করেছেন দিলীপ ঘোষ, বলেন মিমি। 'ছি' বলে তিরষ্কারও করেন তিনি। উল্লেখ্য বরাবরই অভিনয় জীবনে লড়াকু মনের পরিচয় দিয়েছেন মিমি চক্রবর্তী। সাংসদ হয়ে আসার পরও একদম অন্যায় মেনে নিতে পারেননি। তা সে রাতে দক্ষিণ কলকাতায় ট্যাক্সি ড্রাইভারের অশ্লীল আচরণই হোক কিংবা বার্গারে ফাঙ্গাস পাওয়াই হোক, প্রতি ক্ষেত্রেই প্রতিবাদ করেছেন মিমি। তবে এবার আগের থেকেও আরও একধাপ এগিয়ে রাজ্য-রাজনীতি সক্রিয় এবং পরিণত উপস্থিতি দেখালেন তিনি। বিজেপির রাজ্য সভাপতিকেও ছাড়লেন না। আগের মতোই আঁচ বজায় রেখে তুলে উপড়ে ফেললেন বিতর্কের বীজ। তবে এবার দেখার অপেক্ষা জল গড়ায় কোনদিকে। 

 

আরও পড়ুন, 'ইশকওয়ালা ফুড', শীতে মুড বদলাতে এখনই বেরিয়ে পড়ুন, রইল কলকাতার সেরা রেস্তোরার হদিশ