জল্পনা চলছিল অনেকদিন ধরেই, এবার তা বাস্তব রূপ নিলো। ২০২০ তেই সেপ্টেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। ২০১৮ এর পর প্রথমবার আয়োজিত হতে চলেছে প্রতিযোগিতাটি। এই বারের প্রতিযোগিতাটি হবে সাফের ১৩ তম সংস্করণ হতে চলেছে। প্রতিযোগিতাটি শুরু হবে ১৯ শে সেপ্টেম্বর এবং চলবে ৩০ শে সেপ্টেম্বর অবধি। প্রতিযোগিতাটি প্রথমে পাকিস্তানে আয়োজন করার কথা থাকলেও পরে ঠিক হয় তা বাংলাদেশের মাটিতে আয়োজিত হবে। যদিও করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে ভুটান কিংবা শ্রীলঙ্কার মাটিতে ভেন্যু পরিবর্তন করা যেতে পারে। 

আরও পড়ুনঃকফিনে শুয়েই জীবনের শেষ গোলটা করলেন আলেকজান্ডার

মোট ৭ টি দেশ কে নিয়ে আয়োজিত হয় সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। এই সাতটি দেশ হলো ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা, ভুটান এবং নেপাল। শেষ বার ২০১৮ সালের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপও আয়োজন করেছিল বাংলাদেশ। সেই প্রতিযোগিতায় ফাইনালে ভারত কে হারিয়ে বিজয়ী হয়েছিল মালদ্বীপ। সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন ভারতের মনবীর সিং। তার আগে অর্থাৎ ২০১৫ সালের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছিল ভারত। ২০১৯ বছরটা ভারতীয় ফুটবলে খুব একটা ভালো কাটেনি। ফলে ২০২০এর সাফ কাপে ভালো কিছু করে দেখাতে মুখিয়ে থাকবে তারা। 

আরও পড়ুনঃহঠাৎ নিজের অবস্থান থেকে সরে কেনও ধোনির প্রশংসা করলেন গম্ভীর

আরও পড়ুনঃফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবল সংস্থার সিদ্ধান্তে বেজায় চটেছেন ট্রাম্প

এইবারই ভারতীয় সংস্থা লেজারদেয়ারের সাথে স্পনসরশিপের চুক্তির মেয়াদ ফুরিয়েছে সাফ-এর। নতুন স্পনসরশিপের দায়িত্ব পেয়েছে "কে-স্পোর্টস"। শোনা যাচ্ছে টুর্নামেন্টটি সফলভাবে আয়োজন করতে বিশাল অঙ্কের টাকা খরচ করতে চলেছে তারা। প্রায় ১ লক্ষ ইউএস ডলার খরচ করতে চলেছে তারা। এবার দেখার মাঠের ভেতরে কোন দল কেমন পারফরম্যান্স করে।