একদিকে যখন আমেরিকায় পুলিস হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রতিবাদে উত্তাল আমেরিকা। বিক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়েছে গোটা বিশ্ব জুড়ে। পুলিসি বর্বরতার নিন্দায় সরব সনাজের সকল স্তরের বিশিষ্টরা। ঠিক তখনও সামনে এল আরও এক পুলিসি নির্যাতনের ছবি। এক ১৬ বছরের কিশোর ফুটবলারকে গুলি করে মারল পুলিস। এবার ঘটনাস্থল মেক্সিকো। মৃত ফুটবলারের নাম  আলেকজান্ডার মার্টিনেজ। পুলিসের গুলিতে ১৬ বছর বয়সী ফুটবালারের মৃত্যুতে বিক্ষোভ চলছে মেক্সিকো জুড়ে। 

আরও পড়ুনঃকরোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শাহিদ আফ্রিদি,সোশ্যাল মিডিয়ায় জানালেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক

পেশাদার ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন দেখত আলেকজান্ডার মার্টিনেজ। ভাল ফুটবল খেলতও সে। সম্প্রতি একটি টুর্রনামেন্টে তার গোলেই জয় পেয়েছিল দল। কিন্তু বন্ধুদের সঙ্গে বাজারে গিয়ে এমন পরিণতি হবে তা কেউ ভাবতে পারেনি। আলেকজান্ডার ও তার বন্ধুদের বন্দুকধারী ভেবে ভুল করে পুলিস। তারপর এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে। পুলিসের একটি গুলি সরাসরি আলেকজান্ডারের মাথায় গিয়ে লাগে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার।  আলেকজান্ডারের শেষকৃত্যে মানুষের ঢল নামে। তার সারা শরীর ফুলে ঢেকে দেন সাধারণ মানুষ। আলেকজান্ডারের মা বলেছেন,'আমার ছেলের অল্প বয়স। ও তো আর অপরাধী ছিল না। ছেলের ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন ছিল। সব শেষ করে দিল ওরা। কী করে এটাকে পুলিশের ভুল ভেবে ক্ষমা করে দিই।' আলেকজান্ডারের মা এও দাবি করেছেন, তাঁর ছেলে গুলিবিদ্ধ হওয়ার পরও বেশ কিছুক্ষণ রাস্তায় পড়েছিল। কিন্তু কেউ সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেনি। 

আরও পড়ুনঃ১৫ জুন থেকে খুলছে না মোহনবাগান ক্লাব,করোনার জন্য সিদ্ধান্ত বদল

আরও পড়ুনঃএক সপ্তাহে তিনবার ডেইল স্টেইনের বাড়িতে ডাকাতদের হানা

মেক্সিকোর ভেরাক্রুজ ক্লাবেহ হয়ে খেলত আলেকজান্ডার। সেখানকার প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগেও খেলেছে সে। মেক্সিকোর ওয়াক্সেকা রাজ্যের গভর্নর আলেসান্দ্রো মুরাদ জানিয়েছেন, এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে রেয়াত করা হবে না। ইতিমধ্যে একজন পুলিশ কর্মীকে আটক করা হয়েছে। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। কেন আচমকা আলেকজান্ডার ও তার বন্ধুদের ওপর গুলিবর্ষণ করল পুলিস, এই ব্যাপারে এখনও স্থানীয় প্রশাসনের দ্বন্দ্ব কাটছে না।আলেকজান্ডারকে সমাধিস্থ করার পর তাঁর কফিনের ওপর সেন্ট-জার্মেইন এবং মেক্সিকোর মনটেরি ক্লাবের জার্সিতে ঢেকে দেওয়া হয়। ঘটনায় দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছে আন্দোলনকারীরা।