জোসে মৌরিনহোর কোচিংয়ে থাকা টট‍্যেনহাম হটস্পারকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছিল আর বি লেপজিগ। তার পর কেটে গিয়েছে প্রায় অর্ধেক বছর। অবশেষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে আতলেতিকো মাদ্রিদের বিরুদ্ধে খেলতে নামছে লেপজিগ। জার্মান ক্লাবটি গত মরশুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালিস্টদের হারিয়েছিল ৪-০ গোলে। এর থেকেই বোঝা যায় তাদের হালকা ভাবে নেওয়ার কোনও উপায় নেই। যদিও তাদের দলের মূল স্ট্রাইকার টিমো ওয়ার্নার ঘরোয়া মরশুম শেষ হওয়া মাত্র যোগ দিয়েছেন চেলসিতে। তাই আগের থেকে তারা যে সামান্য দুর্বল তাতে সন্দেহ নেই।  

আরও পড়ুনঃচ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের আগে বার্সা শিবিরে করোনার থাবা,আক্রান্ত এক ফুটবলার

অপরদিকে দিয়েগো সিমিওনের আতলেতিকো মাদ্রিদ আত্মবিশ্বাসে ফুটছে। গতবারের চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের ছাড়পত্র পেয়েছে তারা। তাছাড়া সবরকমের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ১৮ ম্যাচ অপরাজিত রয়েছে সিমিওনের ছেলেরা। আর এই প্রতিযোগিতায় খেলার ভালো অভিজ্ঞতা হয়েছে আতলেতিকো মাদ্রিদের। ২০১৪ এবং ২০১৬ সালে দু বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল খেলেছে তারা। যদিও দুবারই তাদের হারতে হয়েছে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে। ম্যানেজার হিসাবে আতলেতিকো-কে সমস্ত ট্রফি জিতিয়েছেন সিমিওনে শুধুমাত্র চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ছাড়া। আজ পর্যন্ত ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো রয়েছেন এমন দলের কাছেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নক-আউট ম্যাচে হেরেছে সিমিওনের আতলেতিকো। কিন্তু এইবার রোনাল্ডোর দল শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নিয়েছে। তাই এবার তার নেতৃত্বে একমাত্র অধরা থাকা ট্রফিটি দলকে উপহার দিতে মরিয়া আর্জেন্টাইন ম্যানেজার। 

আরও পড়ুনঃদুর্দান্ত নেইমার, নাটকীয় ম্যাচ জিতে সেমিতে পিএসজি

আরও পড়ুনঃমাঠেই রেফারিকে লাথি-ঘুষি রাশিয়ার প্রাক্তন অধিনায়কের, গুরুতর আহত রেফারি, দেখুন ভাইরাল ভিডিও

আতলেতিকোর কাছে অবশ্য চিন্তার বেশ কয়েকটি বিষয় রয়েছে। সদ্য তাদের শিবিরের দুজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় করোনা আক্রান্ত হওয়ায় তা অস্বস্তিতে ফেলেছে বাকিদের। সিমে ভারস্লিজকো এবং এঞ্জেল কোরেয়া-র মত দুজন গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলতে না পারাটাও একটা বড় ধাক্কা তাদের কাছে। এমনিতে ফর্মে থাকলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এখনও অবধি মাত্র ১২ টি গোল করেছে সিমিওনের দল। তাদের ডিফেন্সিভ স্ট্র্যাটেজি কতটা কাজে লাগে সেটাই এখন দেখার।